ঢাকা, সোমবার   ১৭ জুন ২০২৪

জায়েদ অনেক ভালো ছেলে, সানী মিথ্যাচার করছে: মৌসুমী (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৪:৩৫, ১৩ জুন ২০২২ | আপডেট: ১৫:০১, ১৩ জুন ২০২২

সম্প্রতি রাজধানীর একটি কনভেনশন হলে মুভিলর্ডখ্যাত ডিপজলের বড় ছেলে সৌমিকের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অভিনেতা ওমর সানী ও জায়েদ খানের মধ্যে এক অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে বলে বিভিন্ন পত্রিকা ও অনলাইনে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

এতে বলা হয়, অভিনেতা ওমর সানী সবার সামনে হঠাৎ করেই জায়েদ খানকে চড় মারেন। জবাবে জায়েদও চুপ ছিলেন না, কোমর থেকে পিস্তল বের করে বলেন, ‘একেবারে গুলি করে দেব।’

সানীর অভিযোগ, জায়েদ খান নাকি গত চার মাস ধরে মৌসুমীর সঙ্গে দুর্ব্যবহার করছেন। এমনকি তার সংসার ভাঙার চেষ্টা করছেন।  

এ নিয়ে রোববার (১২ জুন) বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে জায়েদ খানের বিরুদ্ধে সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন বরাবর লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন ওমর সানী।

অভিযোগে ওমর সানী লিখেছেন, সমিতির সদস্য জায়েদ খান গত চার মাস ধরে আমার স্ত্রী আরিফা পারভীন জামান মৌসুমীকে নানাভাবে হয়রানি ও বিরক্ত করে আসছেন। আমার সুখের সংসার ভাঙার জন্য বিভিন্ন কৌশলে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করে আসছেন।

লিখিত অভিযোগে ওমর সানী দাবি করেছেন, এই অভিযোগের প্রমাণ আমার এবং আমার ছেলের কাছে আছে। তাছাড়া মুরুব্বি হিসেবে আমি ডিপজল ভাইয়ের কাছে এই বিষয়ে অভিযোগ করেছি। কিন্তু কোনো সমাধান হয়নি। 

অভিনেতা-প্রযোজক মনোয়ার হোসেন ডিপজলের ছেলের বিয়েতে ঘটে যাওয়া চড়কাণ্ডের বিষয়েও উল্লেখ করেন ওমর সানী। তিনি বলেন, ডিপজল ভাইয়ের ছেলের বিয়েতে জায়েদ খানের সাথে দেখা হলে, এ বিষয়ে সংযত হওয়ার জন্য আমি অনুরোধ করি। এতে সে আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং হঠাৎ পিস্তল বের করে আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। আমি মনে করি, এমন একজন পিস্তলধারী সন্ত্রাসী যেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্য পদে থাকতে না পারে, সে জন্য উল্লেখিত বিষয়ে বিশেষভাবে বিবেচনা পূর্বক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আমি বিনীতভাবে অনুরোধ করছি।

যদিও এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান। তিনি বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, ‘এমন কোনো ঘটনাই ঘটেনি। গত নির্বাচনের রায়কে সামনে রেখে এমনটা করা হচ্ছে। আর বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে পিস্তল নিয়ে যাওয়া যায় নাকি! আমি বিয়ের দাওয়াতে পিস্তল নিয়ে যাবো কেন। আর ওমর সানী আমাকে চড়ও মারেনি।’

এরকম জলঘোলা পরিস্থিতিতে মুখ খুললেন অভিনেত্রী মৌসুমী। যাকে নিয়ে এতকিছু, সেই মৌসুমীই ঘুরে গেলেন ১৮০ ডিগ্রি। 

একটি গণমাধ্যমে তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, আমার প্রসঙ্গটা টানার কোনো প্রয়োজন ছিল না। আমি জায়েদকে অনেক স্নেহ করি, ও আমাকে যথেষ্ট সম্মান করে। আমাদের মধ্যে যতটুকু কাজের সম্পর্ক, সেটা খুবই ভালো একটা সম্পর্ক। সেখানে ও আমাকে অসম্মান করার কোনো প্রশ্নই ওঠে না। আর ওর মধ্যে ভালো গুণ ছাড়া অপ্রীতিকর কোনো ঘটনা ঘটাতে পারে, এমন কিছুই আমি দেখিনি। ও অনেক ভালো ছেলে। সে কখনোই আমাকে অসম্মান করেনি।’

চলমান বিষয়টি নিয়ে কিছুটা বিরক্ত মৌসুমী বলেন, ‘কেন এই প্রশ্নটা বারবার আসছে, সে আমাকে বিরক্ত করছে- উত্ত্যক্ত করছে! এই জিনিসটা আমি বুঝতে পারছি না... জানি না এটা কেন হচ্ছে। এটা যদিও একান্ত আমাদের ব্যক্তিগত সমস্যা। সে সমস্যা আমাদের পারিবারিকভাবেই সমাধান করা দরকার ছিল।’

এক সময়ের তুমুল জনপ্রিয় এই চিত্রনায়িকা বলেন, ‘আমি মনে করি, এখানে জায়েদের খুব একটা দোষ আমি পাইনি। আরেকটা কথা বলতে চাই, আমাকে ছোট করার মধ্যে আমাদের... যাকে আমরা অনেক শ্রদ্ধা করে আসছি সেই ওমর সানী ভাই কেন এত আনন্দ পাচ্ছেন- সেটা আমি বুঝতে পারছি না। আমার কোনো সমস্যা থাকলে অবশ্যই আমার সঙ্গে সমাধান করবে, সেটাই আমি আশা করি।’

এসময় তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন, ‘আপনারা সাংবাদিক ভাইয়েরা আসলে একটা নিউজ পেলে, কথা না বলেই প্রকাশ করেন। এটা আসলে ঠিক না। এটা আসলে আলোচনা করা উচিত। যেহেতু আমার প্রসঙ্গ আসছে, তাই বিষয়টি আমার সঙ্গে আলোচনা করে নিতেন, তাহলে হয়তো প্রসঙ্গটা লিখতেনই না। তিনি (সানী) আসলে এক তরফা বলেছেন, কিন্তু আমি বলেছি কি-না, আমি অভিযোগ করেছি কি-না; জানাটা খুব বেশি জরুরি ছিল।’

এর আগে, অভিনেতা ওমর সানীর অভিযোগের ভিত্তিতে মুখ খুলেছেন জায়েদ খানও। আলোচিত এই চিত্রনায়ক বলেন, ‘পুরো ঘটনাটাই মিথ্যা ও বানোয়াট। এ বিষয়ে আপনারা চাইলে মৌসুমী আপার সঙ্গে কথা বলতে পারেন। নিশ্চয়ই তিনিও মিথ্যা বলবেন না। আমি আবারও বলছি, আমি কোনোদিন তাকে হেয় প্রতিপন্ন করিনি। এ সব ভুয়া কথা। এখন সানী ভাই একটার পর একটা মিথ্যা গল্প বলছেন। কেন বলছেন তাও বুঝতে পারছি না।’

জায়েদ খান আরও বলেন, ‘এই তো ১৫-২০ দিন আগেও একসঙ্গে ডিপজল ভাইসহ অন্যরা মিলে মিটিং করেছি। সেখানে তো মৌসুমী আপাও এসেছেন। আমাদের অনেক কথাও হয়েছে। যদি সম্পর্ক খারাপই হয়, তাহলে মিটিংয়ে নিশ্চয়ই একসঙ্গে থাকার কথা নয়। তাছাড়া শুটিং নিয়ে প্রায় সময়ই আমাদের কথা হয়েছে। শুধু শুটিং না, বিভিন্ন বিষয় নিয়েও কথা হয়। তাই বলে এই নয় যে, যাচ্ছে তাই বলে দিলেন সানি ভাই। এতে তো মৌসুমী আপারও বদনাম হচ্ছে। আমি বিষয়টা বুঝতেই পারছি না যে, সানি ভাই কেন হঠাৎ এমন নাটক শুরু করলেন। এতে তো আমিসহ সব শিল্পীরই দুর্নাম হচ্ছে।’

এনএস//


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি