ঢাকা, সোমবার   ০৮ আগস্ট ২০২২

কঙ্গোতে ইবোলা মহামারীতে ২ হাজারেরও বেশি মৃত্যু

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:১০, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৯

ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোয় ইবোলা মহামারীতে এ বছর ২ হাজার ২৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তদের চিহ্নিত করে ভ্যাকসিন দেয়ার পরও দ্রুত ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় গোটা দেশে বর্তমানে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ৩৭৩ জন। 

সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক সংবাদ সংস্থা ভয়েস অব আমেরিকা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৮ সালের আগস্ট মাস থেকে শুরু হওয়া ইবোলা মহামারী দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ নর্থ কিভু এবং ইতুরিতে প্রবল আকার ধারণ করে। সংঘাত প্রবণ ওই দুই অঞ্চলে নানা ধরনের সশস্ত্র সন্ত্রাসী দলের কর্মকাণ্ডের কারণে ইবোলা চিকিৎসায়ও তেমন সাফল্য আসছে না। ফলে, মৃতের সংখ্যা ক্রমে বেড়েই চলেছে। 

পাশাপাশি চলতি বছরের নভেম্বর থেকে দেশটিতে নানা ধরনের সহিংসতায় অন্তত ২০০ বেসামরিক লোক মারা গেছেন। উগান্ডার জঙ্গী গোষ্ঠী আলিয়াদ ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস ( এডিএফ) বেশিরভাগ সন্ত্রাসী হামলা ঘটিয়েছে বলে বলা হচ্ছে।

দেশটিতে মাল্টিসেক্টরাল কমিটি ফর রেসপন্স ( সিএমআরই) নামে নামের একটি গ্রুপ ইবোলা নিরাময়ে কাজ করছে। পশ্চিম আফ্রিকায় ২০১৪-১৬ তে যে ইবোলা মহামারী হয় তাতে ১১ হাজার ৩০০ এর বেশি মানুষ মারা যান।

এর আগে, চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়ে কঙ্গোয় ২০ লাখ মানুষ প্রাণঘাতী এই ইবোলা ভাইরাসে আক্রান্ত বলে জানায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ডব্লিও.এইচ.ও। যা পূর্বের সব পরিসংখ্যান ছাড়িয়ে যায় বলে জানায় সংস্থাটি। 

তার বাস্তব প্রতিফলন দেখা যায় বছরের শেষ সময়ে এসেও। প্রতিদিনই এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বাড়ার কারণে এ সংখ্যায়  (২ হাজার ২৩১ জন) এসে দাঁড়ায়। 

আসছে নতুন বছরেও এ সংখ্যা কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় তা নিয়ে রয়েছে শঙ্কা। শুধু কঙ্গোই নয় বিশেষজ্ঞারা বলছেন, দ্রুত এ ভাইরাস প্রতিরোধ করা না গেলে শীঘ্রই তা অন্য দেশেও ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। 

এআই/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি