ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৬ মে ২০২২, || জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৯

‘ভয়ঙ্কর কাণ্ডজ্ঞানহীন কাজ করেছে যুক্তরাষ্ট্র’

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:৩০, ৩ জানুয়ারি ২০২০

উগ্র জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে যুদ্ধের ঝাণ্ডাবাহী কমান্ডার লে. জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে হত্যা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর মাধ্যমে ওয়াশিংটন একটি ভয়ঙ্কর, কাণ্ডজ্ঞানহীন ও উত্তেজনা সৃষ্টিকারী পদক্ষেপ নিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ।

শুক্রবার ভোররাতে ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে মার্কিন সেনাদের বিমান হামলায় সোলাইমানি নিহত হওয়ার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি একথা বলেন। 

জারিফ এ সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানান। বলেন, সন্ত্রাসী মার্কিন সেনাদের কাপুরুষোচিত হামলায় সন্ত্রাস-বিরোধী যুদ্ধের ঝাণ্ডাবাহী এই জেনারেলের শাহাদাতের ফলে তার রেখে যাওয়া প্রতিরোধ আন্দোলনের বটবৃক্ষ আরো বিশাল ও বিস্তৃত হবে।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের এই ঔদ্ধত্বপূর্ণ ও হঠকারী হামলার যে কোনও পরিণতির দায় ওয়াশিংটনকে বহন করতে হবে। ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ এখন যে সিদ্ধান্ত নেবে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তা বাস্তবায়নের দায়িত্ব পালন করবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার ভোররাতে ইরাকের রাজধানী বাগদাদে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর লক্ষ্য করে অন্তত চারটি রকেট নিক্ষেপ করা হয়। ওই হামলায় ইরানের বিপ্লবী গার্ডসের কমান্ডার কাসেম সোলাইমানি নিহত হন। ইরাকের সেনা জানিয়েছে, মধ্যরাতের পরে হাশাদের কনভয় লক্ষ্য করে বিমানবন্দরে একাধিক ক্ষেপণাস্ত্র হানা চালানো হয়। এতে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিসহ আটজনের মৃত্যু হন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনান্ড ট্রাম্পের নির্দেশেই সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগন। হোয়াইট হাউস টুইটে জানায়, বিদেশে মার্কিন অফিসারদের সুরক্ষায় প্রেসিডেন্টের নির্দেশে সোলেইমানিকে হত্যা করে চূড়ান্ত প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। যিনি ইরানিয়ান রেভোলিউশনারি গার্ড কর্পস- কুদ ফোর্সের প্রধান ছিলেন। আগেই কুদ ফোর্সকে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

একে//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি