ঢাকা, মঙ্গলবার   ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৬ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

আমদানি করা নেতার কথায় বিশ্বাস করবেন না: মমতা 

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:২২ ২১ নভেম্বর ২০১৯

গোটা ভারতজুড়ে এনআরসি হবে- দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ’র এমন ঘোষণার প্রতিবাদ জানিয়ে পশ্চিমবঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, এনআরসি নিয়ে কিছু লোক ভয় দেখাচ্ছে। ভরসা রাখবেন। আমদানি করা নেতার কথায় বিশ্বাস করবেন না। সে হিন্দুই বা মুসলমান হোক। 

পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হবে না ঘোষণা দিয়ে মমতা বলেন, ‘আমরা যারা মাটিতে থেকে লড়াই করি, আপনাদের পাশে আছি। আপনারা মাথায় রাখুন, এখানে এনআরসি হবে না।  চিন্তার কারণ নেই, আপনারা এদেশের নাগরিক। একটা লোককেও বিতাড়িত করতে দেব না।’

গতকাল বুধবার (২০ নভেম্বর) ভারতের পার্লামেন্টের শীতকালীন অধিবেশনে নাগরিকপঞ্জি নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ’র দেয়া বক্তব্যের জবাবে মমতা এ কথা জানান। 

এর আগে ওই অধিবেশনে অমিদ শাহ ঘোষণা দেন, গোটা দেশেই এনআরসি হবে। শরণার্থী হিন্দু, পার্সি, বৌদ্ধ, জৈনদের নাগরিকত্ব দিতে নাগরিক সংশোধনী বিলের আওতায় আনা হবে। কারণ পাকিস্তান, বাংলাদেশ এবং আফগানিস্তানে তারা নির্যাতিত। এর পাশাপাশি গোটা দেশে, এমনকি আসামেও ফের নাগরিকপঞ্জি হবে বলেও জানিয়ে দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তার এমন বক্তব্যে কঠোর হুঁশিয়ারি দেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘিতে এক জনসভায় মমতা জানিয়ে দেন, ভয় পাওয়ার কারণ নেই। পশ্চিমবঙ্গে কোনোভাবেই এনআরসি করতে দেয়া হবে না।              
 
আসামে এনআরসির প্রেক্ষাপট স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন তিনি বলেন, ‘কংগ্রেস আমলে অসম চুক্তির একটা অংশ হিসেবে ছিল এনআরসি। তারপর বিজেপি এসে এটা করেছে। মনে রাখবেন, আগুন লাগলে হিন্দু, মুসলিম কিংবা তপশিলীও রক্ষা পায় না। দাঙ্গা লাগলে সবার ঘরেই লাগে।’

এনআরসি হলে হিন্দুদের স্বার্থও যে সুরক্ষিত হবে না, তাও জানিয়ে দেন মমতা। তার কথায়, ‘একটাও হিন্দু বাদ পড়বে না। আসামে ১৪ লাখ হিন্দু বাঙালিকে বাদ দেওয়া হয়েছে। মুসলিমদের পাশাপাশি রয়েছে পাহাড়িরাও। রাজবংশীদের নামও বাদ দেওয়া হয়েছে। তারা সব ডিটেনশন ক্যাম্পে আছে। বাংলায় এসব হবে না। পশ্চিমবঙ্গ মানবিকতা, সভ্যতা, শিক্ষা ও সংস্কৃতির জায়গা। তাই, ভয় পাবেন না।’

সূত্র: জি নিউজ

এআই/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি