ঢাকা, মঙ্গলবার   ৩১ মার্চ ২০২০, || চৈত্র ১৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

করোনায় মৃত্যুর মিছিল বেড়ে ২৮০১

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:৪৭ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

এশিয়ার শীর্ষ উন্নত দেশ চীনের উহানে শুরু হওয়া করোনা ভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু মিছিলে যোগ হয়েছেন ২৯ জন। যা গত একমাসে প্রাণঘাতি এই ভাইরাসটিতে সবচেয়ে কম মৃত্যু। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২ হাজার ৮০১ জনে দাঁড়িয়েছে। 

অপরদিকে, নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৩৩ জন। এ নিয়ে গত বছরের শেষের দিকে শুরু হওয়া এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৮২ হাজার ছাড়িয়েছে। আর সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন প্রায় ৩৩ হাজার জন। 

আজ বৃহস্পতিবার চীনা সংবাদমাধ্যম সাউথ চায়না মর্নিং দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে। 

প্রাণঘাতি ভাইরাসটি ইতিমধ্যে এশিয়া ছেড়ে মধ্যপ্রাচ্য, ইউরোপ ও আফ্রিকায় ছড়িয়েছে। যেখানে নতুন করে যুক্ত হয়েছে ব্রাজিল, সুইডেন, নরওয়ে, গ্রিস, রোমানিয়া, আলজেরিয়া ও এশিয়ার পাকিস্তানের নাম।  

মহামারি আকার ধারণ করা ভাইরাসটিতে চীনের বাহিরে সবচেয়ে বেশি নিহত হয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা প্রাদুর্ভাবে ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা দেড়শ’র কাছাকাছি। 

তবে ইরানের চেয়ে নিহতের সংখ্যায় কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও, চীনের বাহিরে আক্রান্তের হার সবচেয়ে বেশি দক্ষিণ কোরিয়ায়। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১৩ জন মারা গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে  ৩৩৪ জনের দেহে করোনা সনাক্ত করেছে দেশটির চিকিৎসা বিভাগ। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৫৯৫ তে। 

এছাড়া, ভাইরাসটির থাবায় ইতালিতে মারা গেছেন ১২ জন। করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে দেশটির ১০ শহর বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তারপরও থেমে নেই আক্রান্তের হার। যা পার্শ্ববর্তী দেশগুলোতে ছড়াচ্ছে বলে খবর দিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবামাধ্যমগুলো। 

জাপানি প্রমোদতরী ডায়মন্ড প্রিন্সেসে এখন চারজন প্রাণ হারিয়েছেন। গত ৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ওই প্রমোদতরীর যাত্রীদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল। যেখানে আক্রান্তের সংখ্যা এখন পর্যন্ত ৬৯১ জন। এছাড়াও, জাপানে-৩, হংকংয়ে-২, তাইওয়ানে-১, জার্মানিতে-২ ও ফিলিপাইনে একজন মারা গেছেন। 

এদিকে, বিশ্বব্যাপী আতঙ্ক ছড়ানো করোনা ভাইরাসটি যাতে ছড়িয়ে না পড়ে সে ভয়ে ওমরাহ যাত্রী ও মসজিদে নববী ভ্রমণ সাময়িক স্থগিত করেছে সৌদি আরব। বৃহস্পতিবার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানায়।

গত ৩১ ডিসেম্বর হুবেই প্রদেশের উহান শহরেই প্রথম এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। এখন পর্যন্ত এটি বিশ্বের অন্তত ৪০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। চীনের হুবেই প্রদেশের উহানের একটি সামুদ্রিক খাবারের বাজার থেকে এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু। অনেক দেশই তাদের নাগরিকদের চীন ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। 

এ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায়, বেলজিয়াম, কম্বোডিয়া, কানাডা, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, ভারত, ইতালি, জাপান, ম্যাকাও, মালয়েশিয়া, নেপাল, রাশিয়া, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া, স্পেন, শ্রীলঙ্কা, সুইডেন, তাইওয়ান, থাইল্যান্ড, ফিলিপাইন, আরব আমিরাত, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, ইরান এবং ভিয়েতনামে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘কোভিড-১৯ দিনে দিনে আক্রমণাত্মক হয়ে উঠছে। মানুষ থেকে মানুষে ছড়িয়ে পড়ছে দ্রুত। কিছু রোগীর কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না, তাদের মাধ্যমেও ছড়িয়ে পড়ছে।’ এই রোগের কোনো প্রতিষেধক এবং ভ্যাকসিন নেই। মৃতদের অধিকাংশই বয়স্ক যাদের আগে থেকেই শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত জটিলতা ছিল।

এআই/

New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি