ঢাকা, বুধবার   ২০ জানুয়ারি ২০২১, || মাঘ ৬ ১৪২৭

করোনা টেস্ট করানো যাবে যে ৭ সেন্টারে 

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৮:১৯, ২৯ মার্চ ২০২০

করোনা টেস্ট

করোনা টেস্ট

মহামারী করোনায় বর্তমান থমথমে অবস্থায় দেশে ভাইরাসটি পরীক্ষা করার সেন্টার বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন ৭টি স্থানে করোনা পরীক্ষা করানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। রোববার (২৯ মার্চ) রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের (আইইডিসিআর) নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে অনলাইনে যুক্ত হয়ে তিনি এ তথ্য জানান।

পরীক্ষা সেন্টার আরো বাড়ানো হবে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এখন রাজধানীতে আইইডিসিআর, আইপিএইচ, ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন, আইসিডিডিআরবি, শিশু হাসপাতাল, চিলড্রেন হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশন ও আইডিইএসএইস -এ সাতটি প্রতিষ্ঠান করোনা টেস্ট করার জন্য প্রস্তুত আছে।

রাজধানীর বাইরে দেশের প্রতিটি বিভাগে করোনা টেস্ট সম্প্রসারণের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে উল্লেখ করে জাহিদ মালেক বলেন, ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অফ ট্রপিকাল মেডিসিন অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিস হাসপাতালে করোনা পরীক্ষা শুরু হয়েছে। রংপুর ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও মেশিন বসানোর কাজ প্রায় শেষ।

এছাড়া ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও মেশিন বসানোর কাজ শুরু হয়েছে। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে অন্য বিভাগগুলোতেও চালু হবে বলেই জানান মন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে বিভিন্ন হাসপাতালে তিন লাখ পিপিই বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া সরকারের কাছে এই মুহূর্তে ৫০০ ভেন্টিলেটর আছে। সামনে আরও ৪০০টি আসবে। সবমিলিয়ে এখন করোনা পরীক্ষার জন্য ৪৫ হাজার কিট হাতে আছে।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১০৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলেও নতুন করে আর কেউ আক্রান্ত হয়নি বলেই জানিয়েছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। ফলে ভাইরাসটিতে আক্রান্তের সংখ্যা আগে যা ছিল তা-ই আছে। 

অর্থাৎ দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বর্তমানে ৪৮। সেইসঙ্গে কোভিড-১৯ সংক্রমিত মোট ১৫ জন সুস্থ আছেন বলে জানানো হয়েছে। আর মৃতের সংখ্যা ৫ জনই বিদ্যমান।

অন্যদিকে, ভাইরাসটিতে বর্তমানে ভুগছেন বিশ্বের ৬ লাখ ৬৩ হাজার ৭৪০ মানুষ। আক্রান্তদের মধ্যে প্রাণ গেছে ৩০ হাজার ৮৭৯ জনের। একইসঙ্গে সুস্থ হয়ে ঘরে ফেরার সংখ্যা ১ লাখ ৪২ হাজার ১৮৩। 

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি