ঢাকা, সোমবার   ৩০ নভেম্বর ২০২০, || অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

জাতিসংঘের ৭৫তম বার্ষিকী আজ (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৩:১৭ ২৪ অক্টোবর ২০২০

আজ জাতিসংঘ দিবস। বিশ্ব শান্তি, নিরাপত্তা ও মানব উন্নয়নের লক্ষ্য নিয়ে প্রতিষ্ঠিত এই বিশ্বসংস্থাটির ৭৫তম বার্ষিকী পালন করছে, পুরো বিশ্ব। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘সামাজিক ন্যায়বিচার অর্জনে, দূর কর সকল অসামঞ্জস্যতা’। বিশ্লেষকরা বলছেন, মানুষের প্রত্যাশা পূরণ করতে হলে জাতিসংঘের কাঠামো ও কর্মপদ্ধতিতে সংস্কার এখন সময়ের দাবি।

এক শতাব্দিতে দুটি বিশ্বযুদ্ধ। সংঘাতের ভয়াবহতা সমগ্র বিশ্বকে শান্তির জন্যে আকুল করে তুলে। মানুষের এই আকুলতার প্রেক্ষাপটে ১৯৪৫ সালের ২৪ অক্টোবর প্রতিষ্ঠিত হয় জাতিসংঘ।

৪৬টি রাষ্ট্রের অনুসমর্থন নিয়ে যাত্রা শুরু। এখন এর সদস্য সংখ্যা ১শ’ ৯৩টি।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে এর সদর দফতর হলেও জাতিসংঘের তিনটি অতিরিক্ত সহায়ক ও আঞ্চলিক সদর দফতর রয়েছে জেনেভা, ভিয়েনা ও নাইরোবিতে। সাধারণ পরিষদ, নিরাপত্তা পরিষদ, অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদ, সচিবালয়, ট্রাস্টিশিপ কাউন্সিল এবং আন্তর্জাতিক আদালত এই ছয় মূল সংস্থাসহ অনেকগুলো সহযোগী সংস্থা নিয়ে বিশ্বশান্তি, নিরাপত্তা ও মানব উন্নয়নে কাজ করছে সংস্থাটি।  

আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে ন্যায়বিচার, শান্তি ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় সদস্য রাষ্ট্রগুলোর সহযোগিতা বৃদ্ধি জাতিসংঘের অন্যতম কাজ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পিচ এন্ড কনফ্লিক্ট স্টাডিস ডিপার্টমেন্টের চেয়ারম্যান সহযোগী অধ্যাপক সাইফুদ্দিন আহমেদ বলেন, দ্বাদশ শতকের রেনেসাঁর পরে যা হয়নি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরেই ইউএল সিস্টেম সেটা করেছে। এমন কোন ব্যাপার নেই যেটা ইউএল সিস্টেমের মধ্যে কাভার করছে না। প্রত্যাশা আমাদের অনেকগুলো, জাতিসংঘ আছে তাতেই আমরা হিমশিম খাচ্ছি। জাতিসংঘের প্রয়োজনীয়তা এখনও আছে বরং আরও শক্তিশালীভাবে এর অবস্থান পৃথিবীর মানুষ দেখতে চায়।

সংঘাতপূর্ণ এলাকাগুলোতে শান্তি স্থাপনে কাজ করছে জাতিসংঘ। শান্তি মিশনের অন্যতম অংশিদার বাংলাদেশ।

সহযোগী অধ্যাপক সাইফুদ্দিন আহমেদ আরও বলেন, এই ৫টি রাষ্ট্রের ভেটো প্রয়োগের যে প্রেক্ষাপট সেটা ছিল স্নায়ুযুদ্ধ চলাকালীন একটা ব্যাপার ছিল। কিন্তু এখন আর স্নায়ুযুদ্ধ নেই, সেজন্য এটার একটা সংস্কারের দাবি আছে। আফ্রিকার কোন প্রতিনিধিত্ব এখানে নেই, মধ্যপ্রাচ্যের কোন প্রতিনিধিত্ব এখানে নেই, রিজিউন্যাল পলিটিক্স আছে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে- সে কারণে সংস্কার আনাটা খুব দুরূহ হয়ে গেছে। তবে আঞ্চলিক প্রতিনিধিত্বমূলক করলে তখন এটার একটা জুডিশিয়াল ব্যাপার হয়ে দাঁড়াবে বলে আমি মনে করি।

দিবসটির উপলক্ষে বাণী দিয়েছে সংস্থাটির মহাসচিব আন্তোনিও ম্যানুয়েল দে অলিভেরা গুতেরেস।

১৯৭৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর ১৩৬তম সদস্য হিসেবে জাতিসংঘে যোগ দেয় বাংলাদেশ। 

ভিডিও-

 

এএইচ/


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি