ঢাকা, সোমবার   ১৮ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ডেঙ্গু নিরসনে নারিকেল তেল কতটা কার্যকরী?

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২২:১৮ ৭ আগস্ট ২০১৯ | আপডেট: ২২:৪৭ ৭ আগস্ট ২০১৯

সারাদেশে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে ডেঙ্গু। রাজধানী ঢাকার পর এবার জেলা শহরগুলোতেও উল্লেখযোগ্যহারে বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। জনমনে আতঙ্কের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ডেঙ্গুর কিছু প্রাকৃতিক সমাধানের কথা ছড়িয়ে পড়েছে। যার মধ্যে একটি হলো-নারিকেল তেল। অন্যটি হলো পেঁপে পাতার রস। বলা হচ্ছে নারিকেল তেল শরীরে লাগালে এডিস মশায় কামড়ায় না।

এছাড়া, পেঁপে পাতার রসের সাথে আরো কিছু উপাদান যোগ করে একটি নির্দিষ্ট সময় বিরতিতে পান করলে ডেঙ্গু থেকে দ্রুত আরোগ্য লাভ করা সম্ভব। কিন্তু আসলেই পেঁপে পাতার রস বা নারিকেল তেল ডেঙ্গু প্রতিরোধে কতটা কার্যকর? 

এবিষয়ে সম্প্রতি একুশের টেলিভিশনের জনপ্রিয় টকশো অনুষ্ঠান একুশের রাতের প্রধান অতিথি হয়ে এসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় মেডিসিন বিভাগের ডিন (বিএসএমএমইউ) বিশিষ্ট চিকিৎসক অধ্যাপক এবিএম আব্দুল্লাহ বিশেষ ব্যাখ্যা দিয়েছেন। পাঠকের সুবিধাতে গুরুত্বপূর্ণ অংশ তুলে ধরা হলো।

এবিএম আব্দুল্লাহ বলেন, পেঁপে পাতার রস ডেঙ্গু নিরসনে ভূমিকা রাখে, এই দাবির কোন বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। ডেঙ্গু নিরসনে পেঁপে পাতার রসের ভূমিকা পৃথিবীতে বিভিন্নভাবে আলোচনা হয়েছে। কিন্তু পুরোপুরি প্রমাণিত হয়নি যে এটি ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে কার্যকর।'

একুশে টেলিভিশন: ডেঙ্গু নিরসনে নারিকেল তেল ও পেপে পাতার রস আসলেই কি কার্যকরী ?
অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ: আসলে ডেঙ্গুর তেমন কোন চিকিৎসা নেই। আমরা অনেকটা প্রতিরোধ মুলক চিকিৎসা দিয়ে থাকি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বলা হচ্ছে নারিকেল তেল ও পেপে পাতার রস ডেঙ্গু নিরসনে ভূমিকা পালন করে। তবে এর বৈজ্ঞানিক কোন ব্যাখ্যা নেই। আসলে এডিস মশার হাত থেকে বাচঁতে প্রতিরোধ মূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
 
একুশে টেলিভিশন: এডিস মশা কোন সময় মানুষকে কামড়ায়?
অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ: সাধারণত এই মশা দিনের বেলা যেকোন সময় কামড়ায়। তবে সকাল-সন্ধ্যা বেশি কামড়ায়। আলোর সাথে এর একটা সম্পর্ক রয়েছে। আপনি যদি রাতে লাইট জ্বালিয়ে ঘুমান তাহলেও এডিস মশা কামড়াতে পারে।

একুশে টেলিভিশন: টেস্ট না করে ডেঙ্গু শনাক্তের কোন উপায় আছে কী?
অধ্যাপক ডা.এ বি এম আব্দুল্লাহ: জ্বর জ্বর ভাব হলেই অনেকেই প্রয়োজন ছাড়া ভয়ে হাসপাতালে নিয়ে টেস্ট করাচ্ছেন। এটা আসলে ঠিক না। আতঙ্কিত না হয়ে আগে উপসর্গ বা লক্ষণ দেখে হাসপাতালে আসা উচিত। এদের কারণে যারা আসলেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে তাদের সেবা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে।

একুশে টেলিভিশন: ডেঙ্গু রোগের লক্ষণ কী?
অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ: তীব্র পেট ব্যথা। মাত্রাতিরিক্ত বমি হওয়া (২৪ ঘণ্টায় তিনবারের বেশি হলে)।, শরীরে পানি জমে যাওয়া, মুখের ভেতরে, চোখের সাদা অংশে রক্তের ছাপ দেখা যাওয়া।,প্রচণ্ড ক্লান্তি বা দুর্বলতা অনুভব করা, লিভার দুই সেন্টিমিটারের চেয়ে বড় হয়ে যাওয়া, রক্ত পরীক্ষায়, এইচসিটি বেড়ে যাওয়া, প্লাটিলেট কমে যাওয়া। পায়খানার রং কলো হয়ে যাওয়া।

একুশে টেলিভিশন: কখন হাসপাতালে ভর্তি হবেন?
অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ: সাধারণত প্রাথমিকভাবে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হলে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার দরকার নেই। বাড়িতে বসে বিশ্রাম নিন। বাসায় বসে চিকিৎসা নিন। সাধারণভাবে খাবার গ্রহণ করুন। যদি রোগী খাবার খেতে না পারে। বমি হয়, রক্তক্ষরণ হয়, বিশেষ করে মেয়েদের ক্ষেত্রে রক্তক্ষরণ অনেক গুরুত্বপূর্ণ। মাসিকের সময় বা আগে পরে যদি রক্তক্ষরণ হয় তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে হবে।
এছাড়া ডেঙ্গু রোগের সঙ্গে যদি অন্য কোন রোগ থাকে। তবে তাদেরকেউ হাসপাতালে ভর্তি করতে হবে। বিশেষ করে গর্ভবতী মহিলা ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হলে অবশ্যই হাসপাতালে ভর্তি হতে হবে।

একুশে টেলিভিশন: ডেঙ্গু হলেই কি  রক্ত লাগে?
অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ: ডেঙ্গু হলে রক্ত লাগে এমন ধারণা ভুল। রক্ত তখনই লাগবে যখন ডাক্তার বলবে। এছাড়া রক্তক্ষরণের জন্য যদি রক্তশূণ্যতা দেখা দেয় তাহলে রক্তের প্রয়োজন হবে।

একুশে টেলিভিশন: ডেঙ্গু প্রতিরোধে করণীয় কী?
অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ: এবারই প্রথম মহামারি আকার ধারণ করেছে ডেঙ্গু রোগ। যে কারণে ডাক্তার ও নার্স অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন  করেছে। আগামীতে এমন রোগী বেশি হলেও সমস্যা হবে না। আর এখন ডেঙ্গু হলে আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই। নিয়ম মেনে চিকিৎসা নিলে সুস্থ হয়ে যাবে। রোগের উপসর্গ দেখা দিলে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

টিআর/


 


 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি