ঢাকা, রবিবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ধর্ষকদের সর্বসমক্ষে গণপিটুনি দেয়ার দাবি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২১:৪৮ ২ ডিসেম্বর ২০১৯

রাজ্যসভাই জয়া বচ্চন

রাজ্যসভাই জয়া বচ্চন

‘ধর্ষকদের সর্বসমক্ষে এনে গণপিটুনি দেয়া উচিত’ বলে মত প্রকাশ করেছেন বলিউড শাহেনশাহ অমিতাভ বচ্চনের স্ত্রী ও বলিউড অভিনেত্রী থেকে সংসদ সদস্য বনে যাওয়া জয়া বচ্চন। 

গত বুধবার (২৭ নভেম্বর) ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যের শামসাবাদের টোল প্লাজার কাছে এক পশু চিকিৎসককে ধর্ষণ করে পুড়িয়ে মারে দুষ্কৃতিরা। সেই ঘটনার প্রেক্ষিতেই সোমবার (২ ডিসেম্বর) দেশটির রাজ্যসভায় ওই মত প্রকাশ করেন জয়া। 

এহেন ঘটনায় ক্ষোভে উত্তাল গোটা ভারত। এমন জঘণ্য কাণ্ডের নিন্দার ঝড় বইছে বলিউড তারকাদের মাঝেও। এরই জেরে এদিন উত্তাল হয়ে ওঠে ভারতের সংসদও। সংসদে কেউ কেউ দাবি তোলেন ধর্ষণে অভিযুক্তদের ফাঁসি দেয়া বা খোজা করে দেয়া উচিত।

ভারতের সমাজবাদি পার্টির সাংসদ জয়া বচ্চন এদিন আবেগপ্রবণ হয়ে রাজ্যসভায় বলেন, ‘ধর্ষকদের মানুষের মাঝখানে এনে সর্বসমক্ষে গণপিটুনি দেয়া উচিত।’ 

সরকারের উদ্দেশ্যে তার দাবি, ‘আগে কতবার এই ধরনের অপরাধের জন্য কথা বলেছি। আমি মনে করি, এবার সময় এসেছে। নির্ভয়া হোক বা কাঠুয়া কিংবা তেলেঙ্গানা- মানুষ জানতে চায়, ঘটনার বিচার দিতে সরকার কী করছে? এবার তা সুনির্দিষ্টভাবে জানাতে হবে। বারবার একই জায়গায় লজ্জাজনক ঘটনা ঘটছে। সুরক্ষার দায়িত্বে যারা রয়েছেন তারা প্রশ্নের মুখোমুখি হবেন না কেন? অনেক দেশ রয়েছে যেখানে এই ধরণের ঘটনা ঘটলে মানুষ নিজেরাই অপরাধীদের শাস্তি দেয়। এক্ষেত্রেও ধর্ষকদের মানুষের মাঝখানে এনে ছেড়ে দেয়া উচিত ও গণপিটুনি দিতে হবে।’

এদিকে, হায়দ্রাবাদের ধর্ষণকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে সামাজিক মাধ্যমে তুমুল সমালোচনা করেন অক্ষয় কুমার, সালমান খান, অভিষেক বচ্চন, ফারহান আখতার, রিচা চাড্ডা, ভিভিএস লক্ষ্মণ, যুবরাজ সিং, আনন্দ কুমার, যোগেশ্বর দত্ত, বিজয় দেবেরাকোণ্ডা, চিন্ময়ী শ্রীপাদ সকলেই। 

তবে সবার মুখে যে কথাটি বারবার উচ্চারিত হয়েছে তা হলো- ধর্ষকদের শাস্তি আরও দ্রুত এবং আরও কঠোর হতে হবে।

এ বিষয়ে তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ধর্ষণের ঘটনার তদন্তে ফাস্ট ট্র্যাক কোর্ট অর্থাৎ দ্রুত বিচার আদালত গঠিত হয়েছে।

অন্যদিকে, তেলেঙ্গানার এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত চার অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিরাপত্তার গাফিলতির জন্য বহিষ্কার করা হয় তিন পুলিশ কর্মীকে।

এনএস/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি