ঢাকা, সোমবার   ১২ এপ্রিল ২০২১, || চৈত্র ২৮ ১৪২৭

পশুর নদে ডুবে যাওয়া কার্গো জাহাজ থেকে কয়লা উত্তোলন শুরু

মোংলা প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৭:২৩, ৭ মার্চ ২০২১

মোংলার পশুর নদে ডুবে যাওয়ার সাত দিন পর বিআইডব্লিউটিসি’র কার্গো জাহাজ ‘বিবি-১১৪৮’ থেকে কয়লা উত্তোলন শুরু হয়েছে। রোববার (৭ মার্চ) সকালে কয়লা উত্তোলন শুরু করে মোংলা স্যালভেজ এন্টারপ্রাইজ কোম্পানি। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাষ্টার কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
 
শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে প্রায় ৭'শ মে. টন কয়লা নিয়ে পশুর নদে তলা ফেটে ডুবে যায় সরকারী সংস্থার তত্বাবধানে কার্গো জাহাজ এম.ভি বিবি-১১৪৮। এরপর থেকে গত সাতদিনেও উদ্ধার তৎপরতা শুরু করতে পারেনি কোন পক্ষ।
 
স্থানীয় ডুবোরি দল প্রধান ও মোংলা স্যালভেজ এন্টারপ্রাইজ কোম্পানির মালিক মো. আব্দুল মান্নান বলেন, ঢাকার স্টার্ন ক্যারিয়ারের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী আজ সকাল থেকে তারা কয়লা উত্তোলন শুরু করেন। ১০ জনের একটি ডুবোরি দল এ কাজ শুরু করেন এবং আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ডুবে যাওয়া কার্গো জাহাজ থেকে সম্পূর্ণ কয়লা উত্তোলন করতে পারবেন বলে জানান তিনি। 

ডুবে যাওয়া কার্গো জাহাজের মাষ্টার ওসমান আলী জানান, মোংলা বন্দরের হাড়বাড়িয়ার ৭ নম্বর এ্যাংকোরেজ থাকা বিদেশি জাহাজ এম,ভি জসকো থেকে শনিবার প্রায় ৭'শ মে. টন কয়লা বোঝাই করে কার্গো জাহাজ এম.ভি বিবি-১১৪৮। এরপর শনিবার রাতে কার্গো জাহাজটি ওই বিদেশি জাহাজ থেকে যশোরের নওয়াপাড়ার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। এরই মধ্যে রাত ১১টার দিকে মোংলার পশুর নদীর বানীশান্তা ও কানাইনগর এলাকায় পৌঁছালে তলা ফেটে কার্গোটি ডুবে যায়। এ সময় ওই জাহাজের মাষ্টারসহ ১০ জন ষ্টাফ ও একজন নিরাপত্তাকর্মী সাঁতরে কূলে উঠে যায়। 

এ দিকে জাহাজটি উদ্ধার কাজ শুরু না হলেও ঘটনাস্থলে মার্কিংয়ের ব্যবস্থার কাজ শুরু করার কথা জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। তবে কার্গোটি পশুর চ্যানেলের মুল চ্যানেলের বাহিরে ডুবেছে বলে নৌযান চলাচলে মুল চ্যানেল নিরাপদ রয়েছে বলে জানিয়েছে বন্দরের হারবার মাষ্টার কমান্ডার ফখর।
কেআই//
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি