ঢাকা, শনিবার   ২৪ আগস্ট ২০১৯, || ভাদ্র ৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

পৌরসভার গেটে ১০ দিন ধরে তালা, নাগরিক ভোগান্তি চরমে

হিলি প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৫:৫৪ ২৩ জুলাই ২০১৯ | আপডেট: ১৬:২৮ ২৩ জুলাই ২০১৯

চাকরি জাতীয়করণ ও রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেতন ভাতাসহ অন্যান্য সুবিধার দাবিতে ঢাকাতে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি পালন করছেন দেশের সব পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এতে করে গত দশদিন ধরে দিনাজপুরের হাকিমপুর (হিলি) পৌরসভা কার্যালয় তালাবদ্ধ অবস্থায় রয়েছে। নাগরিক সেবা না পেয়ে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন পৌরসভার সাধারণ নাগরিকরা।

গত ১৪ জুলাই থেকে কেন্দ্রিয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে হাকিমপুর (হিলি) পৌরসভার সব কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ঢাকায় অবস্থান করছেন। এর ফলে আজ মঙ্গলবার টানা দশম দিনের মতো হাকিমপুর পৌরসভার সব কর্মকাণ্ড বন্ধ রয়েছে। এর ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন জন্মনিবন্ধন, নাগরিক সনদপত্র ও ট্রেডলাইসেন্সসহ নানা দরকারে সেবা নিতে আসা পৌরসভার নাগরিকরা। পৌরসভার বিভিন্ন সড়কের বাতি বন্ধ হয়েছে, ময়লা আবর্জনার ভাগারে পরিণত হয়েছে।

পৌরসভায় আসা জুয়েল হোসেন বলেন, আমার দাদী গুরুত্বর অসুস্থ হওয়া চিকিৎসকেরা দ্রুত তাকে ভারতে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছে। সেই মোতাবেক পাসপোর্ট করা প্রয়োজন সে কারণে পৌরসভায় নাগরিকত্ব সনদপত্র নিতে এসেছি কিন্তু এসে দেখি পৌরসভার সব কার্যক্রম বন্ধ। পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আন্দোলন চলার কারণে গত কয়েকদিন ধরে পৌরসভায় এসে ঘুরে যেতে হচ্ছে। এতে করে আমরা চরম বিপাকের মধ্যে পড়েছি। 

একই অবস্থা জন্মনিবন্ধন, ট্রেডলাইসেন্সসহ অন্যান্য কাজের জন্য পৌরসভায় আসা সাধারণ জনগণের। সেবা না পেয়ে আবার খালি হাতে ফিরে যেতে হচ্ছে তাদের, এতে করে আমাদের চরম সম্যসায় পড়তে হচ্ছে। 

বাংলাহিলি বাজারের ব্যবসায়ী মাসুদ রানা বলেন, পৌরসভার স্টাফদের আন্দোলন চলার কারণে আজ দশদিন ধরে হিলি বাজার থেকে ময়লা আবর্জনা অপসারণ কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। এতে করে ডাস্টবিন উপচে পড়ে ময়লা আবর্জনাগুলো সড়কের উপরে পড়েছে। ফলে পুরো বাজার এলাকা ময়লা আবর্জনার ভাগারে পরিণত হয়েছে। সেইসঙ্গে পৌরসভার বিভিন্ন সড়কের বাতিগুলোও বন্ধ হয়ে গেছে। এতে করে রাতে ভুতুড়ে নগরী হিসেবে পরিণত হয়েছে।

পৌরসভা সার্ভিস এ্যসোসিয়েশন হাকিমপুর (হিলি) পৌর ইউনিটের সভাপতি সাইফুল আলম জানান, বাংলাদেশের অধিকাংশ পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মাসের পর মাস বেতন ভাতা না পেয়ে এক ধরনের মানবেতর জীবনযাপন করছেন। তাই তাদের বেতন-ভাতা ও পেনশনসহ অন্যান্য সুবিধাদি রাষ্ট্রীয় কোষাগার হতে প্রদানের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন চালিয়ে আসছে। এরই আলোকে কেন্দ্রিয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গত ১৪ জুলাই থেকে পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারীরা কর্মবিরতি পালন করছেন। আমরা সবাই বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছি।

আমাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলমান থাকবে। তবে সাময়িক অসুবিধার জন্য পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা আন্তরিকভাবে দু:খিত।

হাকিমপুর (হিলি) পৌরসভার প্যানেল মেয়র মিনহাজুল ইসলাম বলেন, চাকরি জাতীয়করণ ও রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেতন ভাতার দাবিতে পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি চলার কারণে পৌরসভার স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এতে করে জনগণ ভোগান্তির মধ্যে পড়েছেন। তারা কোনও ধরনের সেবা পাচ্ছেন না। আমি সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই তাদের দাবির বিষয়ে শিগগির ব্যবস্থা গ্রহণ করেন এবং তারা যেন তাদের কর্মস্থলে ফিরে আসে। এতে করে সমস্যা সমাধান হবে বলেও তিনি আশা ব্যক্ত করেন।

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি