ঢাকা, শুক্রবার   ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, || আশ্বিন ৮ ১৪২৮

মৃতদেহের সঙ্গেই যৌনাচার! বিস্ফোরক দাবি আফগান নারীর

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:২৩, ২৩ আগস্ট ২০২১ | আপডেট: ১৫:২৭, ২৩ আগস্ট ২০২১

পালিয়ে আসা আফগান নারীরা

পালিয়ে আসা আফগান নারীরা

দীর্ঘ ২০ বছর পর আফগানিস্তানে আবারও কায়েম হয়েছে তালেবানের রাজত্ব। এই আবহে সবথেকে বেশি আতঙ্কিত দেশটির নারীরা। ইতিমধ্যেই জারি হয়েছে নানা রকম ফতোয়া। এরই মাঝে বিস্ফোরক দাবি করে বসলেন এক আফগান নারী।

মৃতদেহকেও নাকি ধর্ষণ করে তালেবান যোদ্ধারা! এমনই ভয়ঙ্কর তথ্য সামনে আনলেন আফগান পুলিশের ওই নারী সদস্য। তার দাবী, মৃত্যুর পরও তালেবানি সন্ত্রাসের হাত থেকে রেহাই নেই নারীদের। 

মুসকান নামে ওই আফগান পুলিশের নারী সদস্য দিল্লী আসার পর এমনই বিস্ফোরক তথ্য সামনে এনেছেন। আফগান রাজধানী তালেবানদের দখলে আসার পর তিনি বুঝেছিলেন যে, পালিয়ে আসা ছাড়া আর কোনও উপায় নেই। 

আফগানিস্তানের ওই নারী পুলিশ সদস্য জানিয়েছেন, নিজের চোখের সামনে এই ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা দেখেছেন তিনি। তালেবানরা কতটা নৃশংস হতে পারে, তার বর্ণনায় মুসকান জানিয়েছেন, প্রতিটি পরিবার থেকে একজন মেয়েকে তুলে নিয়ে যায় তারা। এরপর ধর্ষণ নয়তো গুলি করে হত্যা, এটাই রীতি।

তিনি আরও জানান, তালেবান গোষ্ঠীর হুমকিতে তার জীবন অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছিল। যার ফলশ্রুতিতে তাকে চাকরি ছেড়ে, দেশ ছেড়ে পালাতে হলো। অতি সম্প্রতি দিল্লি এসে এভাবেই শেয়ার করেন নিজের ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা। 

আফগান এই নারী আরও বলেন, ধর্ষণের সময় নারীটি জীবিত না মৃত- তাও দেখে না তালেবানরা। আর যে সব নারী সরকারের হয়ে কাজ করে তাদের পরিণতি হয় আরও ভয়াবহ।

এমনকি তালেবানের হাত থেকে পুরুষেরাও রেহাই পান না- উল্লেখ করে মুসকান আরও জানান, বিশেষ করে পরিবারের পুরুষেরা যদি কোনও না কোনও সরকারি কাজকর্মের সঙ্গে যুক্ত থাকেন, তাহলে একই পরিণতি হয় তাঁদেরও। সূত্র- জিনিউজ।

এনএস//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি