ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

মোদিকে টেলিফোনে অভিনন্দন জানালেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত : ২৩:০২ ২৩ মে ২০১৯ | আপডেট: ০৮:৫০ ২৪ মে ২০১৯

লোকসভা নির্বাচনে বিপুল জয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে টেলিফোন করে অভিনন্দন জানিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বলেন, আজ বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নরেন্দ্র মোদিকে ফোন করে ১৭তম লোকসভা নির্বাচনে জয়ের জন্য অভিবাদন জানান। বাংলাদেশের সরকার, জনগণ, আওয়ামী লীগ ও নিজের পরিবারের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী তে অভিনন্দন জানান।

পাঁচ মিনিটের ফোনালাপে শেখ হাসিনা বলেন, ভারতের জনগণ আপনার ওপর যে আস্থা ও বিশ্বাস স্থাপন করেছে এই বিশাল জয়ে তারই প্রতিফলন ঘটেছে। বিজেপির এই বিজয়কে ঐতিহাসিক আখ্যা দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, এই বিজয়ে দক্ষিণ এশিয়ার জনগণ আনন্দিত হবেন এবং এই অঞ্চলের মানুষ ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবে।

নরেন্দ্র মোদির সুস্বাস্থ্য কামনা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে বাংলাদেশ ভ্রমণের আমন্ত্রণ জানান বলেও উল্লেখ করেন ইহসানুল করিম।

এর আগে এক বার্তায়নরেন্দ্র মোদীকে অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রবীশ কুমার বিষয়টি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

রবীশ বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নরেন্দ্র মোদীকে তার নেতৃত্বে বিজয় অর্জনের জন্য অভিনন্দন বার্তা পাঠিয়েছেন। তিনি এতে ভারতীয় জনগণের সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করেন।

অভিনন্দন বার্তায় নরেন্দ্র মোদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লিখেছেন, আপনার অসাধারণ নেতৃত্বে ভারতের ১৭তম লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের জয়ে বাংলাদেশের সরকার ও জনগণ এবং আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। এই জয় আপনার প্রতি বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতান্ত্রিক দেশের জনগণের বিশ্বাস ও আস্থার প্রতিফলন।

বার্তায় প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেছেন, সত্যিকার সুসম্পর্ক, পারস্পরিক বিশ্বাস ও শ্রদ্ধায় ভারতের সঙ্গে বহুমাত্রিক সম্পর্ককে গুরুত্ব দেয় বাংলাদেশ। ১৯৭১ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতের গুরুত্বপূর্ণ সহযোগিতা ছিল এই সম্পর্কের গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক।

প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে, নিজেদের জনগণ দ্বারা আপনি ও আমি পুনরায় নির্বাচিত হওয়ার ফলে ইতোমধ্যে প্রতিবেশী দেশগুলোর জন্য আদর্শ হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়া বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক আরও জোরদার হবে এবং আমাদের সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় পৌঁছাবে।

অভিনন্দন বার্তায় প্রধানমন্ত্রী ভারতের জনগণের জন্য শান্তি, সুখ ও সমৃদ্ধি কামনা করেন। একইসঙ্গে তিনি মোদির সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেছেন।

প্রসঙ্গত, ভারতের সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল চূড়ান্তভাবে ঘোষণা হতে শুরু করেছে। নির্বাচন হওয়া ৫৪২টি আসনের মধ্যে এখন পর্যন্ত ১৮ আসনের চূড়ান্ত ফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ক্ষমতাসীন বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট পেয়েছে ১৫ আসন, আর কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইউপিএ জোট পেয়েছে ৩ আসন। এনডিএ জোটের ১৫টি আসনই পেয়েছে বিজেপি, আর ইউপিএ জোটের ২টি আসন কংগ্রেসের পাওয়া। এছাড়াও এনডিএ জোট এগিয়ে আছে ৩১০ আসনে এবং ইউপিএ জোট এগিয়ে আছে ৮৩ আসনে। এছাড়া তৃণমূল কংগ্রেসসহ অন্যরা এগিয়ে আছে ১২৫ আসনে।

আজ বৃহস্পতিবার (২৩ মে) সকাল ৮টায় একযোগে ভারতজুড়ে ভোট গণনা শুরু হয়। চূড়ান্ত ফল দেরিতে আসতে থাকলেও দুপুরেই স্পষ্ট হয়ে যায় গতিপ্রকৃতি। ৫৪৩টি আসনের মধ্যে সরকার গঠনের জন্য ২৭২ আসন প্রয়োজন হলেও খবর মেলে এনডিএ ৩০০ এরও বেশি আসনে এগিয়ে রয়েছে। এরমধ্যে কেবল বিজেপিই সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনের বেশি আসনে এগিয়ে আছে। চূড়ান্ত ফলও যেন তেমনই আসতে শুরু করেছে।

এবারের জয়ের মধ্য দিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো সরকার গড়তে চলেছে বিজেপি। একইভাবে দ্বিতীয় দফায় প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিতে চলেছেন নরেন্দ্র মোদী। এখন বাকি কেবল আনুষ্ঠানিকতা। নির্বাচন কমিশনের ঘোষণার পর বিজেপি সরকার গঠনের তৎপরতা শুরু করবে।

আরকে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি