ঢাকা, সোমবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২১, || মাঘ ১১ ১৪২৭

স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে হত্যা, আমৃত্যু কারাদণ্ডিত স্ত্রী

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৯:১৯, ২ ডিসেম্বর ২০২০ | আপডেট: ১৯:২৫, ২ ডিসেম্বর ২০২০

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় স্বামীকে পুরুষাঙ্গ কেটে ও জবাই করে হত্যার ঘটনায় ঘাতক স্ত্রীকে আমৃত্যু সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেছে আদালত। একইসঙ্গে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও ১ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের রায় দেয়া হয়েছে। 

বুধবার (২ ডিসেম্বর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ২য় আদালতের বিচারক সাবিনা ইয়াসমিনের আদালত এ রায় দেন।

আমৃত্যু সশ্রম কারাদণ্ড প্রাপ্ত রোজিনা বেগম (৪২) ফতুল্লার চিতাশালের নুরবার্গ এলাকার নিহত সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী।

আদালতের অতিরিক্ত কৌঁসুলি জাসমিন আহমেদ জানান, ফতুল্লার চিতাশালের বাসিন্দা নিহত সিরাজুল ইসলাম জুরাইন রেলগেট বাজারে কাঁচামালের ব্যবসা করতেন। তার ছোট ভাই শফিকুল ইসলামের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো স্ত্রী রোজিনা বেগমের।

এরই জের ধরে ঘটনার দিন ২০০৩ সালের ২৩ অক্টোবর রাতে নিহত সিরাজুল ও তার ভাই শফিকুল দোকান বন্ধ করে ফতুল্লার চিতাশাল এলাকায় তাদের বাড়িতে ফেরেন। পরে রাত ৩টার দিকে রোজিনা ও শফিকুল প্রতিবেশীদের জানায়- সিরাজকে ঘরে পাওয়া যাচ্ছে না। খবর পেয়ে নিহত সিরাজুল ইসলামের বড়  মফিজুল ইসলাম তাদের বাড়িতে আসেন। পরে তালাবদ্ধ পাশের ঘরের দরজা খুলে দেখেন সিরাজুল ইসলাম রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে আছেন। ওই সময় সিরাজুলের গলা ও পুরুষাঙ্গসহ শরীরের বিভিন স্থানে ক্ষতের চিহ্ন ছিলো। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথেই মারা যান সিরাজুল।

পরবর্তীতে নিহত সিরাজুল ইসলামের স্ত্রীর কথাবার্তায় সন্দেহ হলে তাকে অভিযুক্ত করে ফতুল্লা থানায় মামলা করেন নিহতের বড় ভাই ভাই মফিজুল ইসলাম।

অতিরিক্ত কৌঁসুলি জাসমিন আহমেদ আরও জানান, ‘স্বাক্ষীদের সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে আদালত আসামি রোজিনা বেগমকে আমৃত্যু সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন। অনাদায়ে আরও ১ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ আদালত পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান জানান, আমৃত্যু দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি রোজিনা বেগমকে নারায়ণগঞ্জের কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি