ঢাকা, সোমবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২১, || মাঘ ১১ ১৪২৭

১৭ জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে করোনাশঙ্কা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২৩:৫৪, ১১ মার্চ ২০২০ | আপডেট: ০০:০৬, ১২ মার্চ ২০২০

করোনা ভাইরাস

করোনা ভাইরাস

বিশ্বব্যাপী থাবা বসানো মরণঘাতী করোনা ভাইরাসের আশঙ্কা ছড়িয়ে পড়েছে বাংলাদেশের ১৭টি জেলায়। যাতে এখন পর্যন্ত বিদেশ ফেরতসহ অন্তত ২১৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তবে কারো শরীরেই করোনার উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। সবাই সুস্থ থাকলেও স্থানীয় জনমনে দেখা দিয়েছে শঙ্কা। 

হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা এই ব্যক্তিদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রয়েছে মানিকগঞ্জে। জেলাটিতে এখন পর্যন্ত ৭৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এছাড়া নারায়ণগঞ্জে ৪০, মাদারীপুরে ৩০, কিশোরগঞ্জে ৩৪, ফেনীতে ৯, নোয়াখালীতে ১, যশোরে ৬, বগুড়ায় ২, নরসিংদীতে ২, খুলনায় ১, সিলেটে ১, ফরিদপুরে ৩, জামালপুরে ১, রাজবাড়ীতে ২, ঝিনাইদহে ২, চুয়াডাঙ্গায় ও দিনাজপুরে ১ জন করে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

কোয়ারেন্টাইনে থাকা এসব ব্যক্তিদের ওপর সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করছেন জেলা ও উপজেলার স্বাস্থ্যকর্মীরা। তাদেরকে বাড়ির বাইরে যেতেও নিষেধ করা হয়েছে। এমনকি তাদের পরিবারের সদস্যদেরও বাইরে বের হওয়া সীমিত করা হয়েছে।

মানিকগঞ্জ: 
জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বিদেশ ফেরত ৭৯ জনকে নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তারা সকলেই সুস্থ আছেন। বাড়তি সতর্কতা হিসেবেই এমন ব্যবস্থা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. আনোয়ারুল আমিন আখন্দ।

নারায়ণগঞ্জ:
রাজধানীর পার্শ্ববর্তী এই জেলাটিতে এখন পর্যন্ত ৪০ জনকে নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এর মধ্যে ইতালি ফেরত দুইজন আইইডিসিআরে চিকিৎসাধীন। বাকি সবাই এই দুইজনের সংস্পর্শে ছিলেন। তবে কারো শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দেয়নি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা ১০০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল সার্জন আসাদুজ্জামান।

মাদারীপুর:
ইতালি ফেরত এক প্রবাসীর সংস্পর্শে থাকা ২৯ জনকে চিহ্নিত করে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তবে তারা সকলেই সুস্থ আছেন। আর ওই প্রবাসীর মধ্যে করোনার উপসর্গ দেখা দেয়ায় তাকে ঢাকায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. শফিকুল ইসলাম।

কিশোরগঞ্জ: 
জেলার ভৈরব উপজেলায় বিদেশ ফেরত ৩৪ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে ৩২ জন পুরুষ ও দুইজন নারী। তবে তারা সকলে সুস্থ আছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বুলবুল আহমেদ।

ফেনী: 
বিদেশ ফেরত নয় জনকে নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তবে কারো মধ্যেই করোনার উপসর্গ দেখা যায়নি। বুধবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন সাজ্জাদ হোসেন।

নোয়াখালী: 
জেলার হাতিয়া উপজেলার জাহাজমারা ইউনিয়নে এক কাতার প্রবাসীকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. মমিনুর রহমান।

যশোর: 
চৌগাছা উপজেলায় ইতালি ফেরত এক দম্পতিসহ মোট ছয়জনকে নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা লুৎফুন্নাহার।

বগুড়া: 
বিদেশ ফেরত দুইজনকে নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন।

নরসিংদী: 
জেলার সদর ও রায়পুরা উপজেলায় বিদেশ ফেরত দুইজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এ তথ্য জানিয়েছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইব্রাহিম টিটন।

খুলনা: 
দক্ষিণাঞ্চলের এই জেলায় ইতালি ফেরত একজনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. সুজাত আহমেদ।

সিলেট: 
জেলায় সৌদি ফেরত এক নারীকে ডা. শামসুদ্দিন হাসপাতালের কোয়ারেন্টাইনে ভর্তি করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মণ্ডল।

ফরিদপুর: 
ইতালি ফেরত তিন ভাইকে নিজ বাড়িতে আলাদা কক্ষে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। জেলা সিভিল সার্জন ডা. ছিদ্দিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

জামালপুর: 
মালয়েশিয়া ফেরত এক প্রবাসী নিজ বাড়িতে পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা সিভিল সার্জন চিকিৎসক গৌতম রায়।

রাজবাড়ী: 
বালিয়াকান্দি উপজেলায় ইতালি ফেরত বাবা (৪৫) ও ছেলেকে (২২) হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) একেএম হেদায়েতুল ইসলাম।

ঝিনাইদহ: 
শহরের আরাপপুর মাস্টারপাড়ায় ইতালি ফেরত স্বামী-স্ত্রীকে নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেলিনা বেগম।

চুয়াডাঙ্গা: 
জেলার দামুড়হুদায় সৌদি ফেরত এক নারীকে (৬৫) করোনা আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার জ্বর, কাশি এবং শ্বাসকষ্ট দেখা দিয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. আবু হেনা মো. জামাল শুভ।

দিনাজপুর: 
দিনাজপুরে চীন ফেরত এক শিক্ষার্থী জ্বর, সর্দি ও কাশিতে আক্রান্ত হওয়ায় নাক ও গলার লালার নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। একই সঙ্গে তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. আব্দুছ কুদ্দুছ।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি