ঢাকা, মঙ্গলবার   ০২ মার্চ ২০২১, || ফাল্গুন ১৭ ১৪২৭

ভাতিজিকে ব্লেড দিয়ে রক্তাক্ত করল চাচারা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৯:১৬, ২০ জানুয়ারি ২০২১ | আপডেট: ১৯:২৫, ২০ জানুয়ারি ২০২১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জেরে শান্তা আক্তার (২৫) নামে এক ভাতিজিকে হাত-পা বেঁধে মারধোর শেষে ব্লেড দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে পুচিয়ে রক্তাক্ত করে দিয়েছে চাচা। অভিযোগ পেয়ে মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) রাতে সদর উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়নের শিলাউর গ্রাম থেকে চাচা আলী মিয়াকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

এখনও এ ঘটনায় জড়িত শান্তা আক্তারের অপর দুই চাচা হুমায়ূন মিয়া (৪০) ও রতন মিয়াকে (৫০) গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। আহত শান্তা আক্তার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। সে সুলতানপুর ইউনিয়নের শিলাউর গ্রামের আলগাবাড়ির আইয়ুব মিয়ার কন্যা ও একই গ্রামের পাশাপাশি বাড়ির রাজমিস্ত্রী রাসেল মিয়ার স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক কন্যা সন্তানের জননী।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আবদুর রহিম বলেন, গত ১৭ জানুয়ারি সন্ধ্যার দিকে শান্তা আক্তার ডাক্তার দেখানোর জন্য নিজ বাড়ি থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে আসার সময় তার চাচারা তাকে আটক করে। পরে তার হাত-পা বেঁধে মারধোর শেষে ব্লেড দিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে পুচিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। 

এই ঘটনায় শান্তার মা রোশনা আক্তার বাদী হয়ে শান্তার তিন চাচা হুমায়ূন মিয়া, আলী মিয়া ও রতন মিয়ার বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ মঙ্গলবার রাতে মামলার আসামি আলী মিয়াকে গ্রেপ্তার করে। আজ বুধবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। 

বাকী আসামিদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেই জানালেন ওসি আবদুর রহিম।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি