ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৯ অক্টোবর ২০২১, || কার্তিক ৩ ১৪২৮

কুমিল্লার লালমাইয়ে নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ক কর্মশালা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২০:১৭, ১৮ আগস্ট ২০২১

অভিবাসন প্রক্রিয়ায় ইউনিয়ন পরিষদকে সম্পৃক্ততাকরণ, বিদেশগনেচ্ছু ও বিদেশগামীসহ জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে আজ বুধবার (১৮ আগষ্ট) কুমিল্লা জেলার লালমাই উপজেলার বাগমারা (দক্ষিণ) ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে কুমিল্লা জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসের আয়োজনে নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ক সচেতনতামূলক একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।
 
বৈদেশিক কর্মসংস্থানে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধির লক্ষে আয়োজিত এ কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ মো: কামরুজ্জামান, বিশেষ অতিথি ছিলেন কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার, এমআরসি বাংলাদেশের কোঅর্ডিনেটর মাহবুবুল আলম ও বাগমারা (দক্ষিণ) ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো: লোকমান হোসেন এবং সভাপতি ও মূল আলোচক ছিলেন কুমিল্লা জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসের সহকারী পরিচালক দেবব্রত ঘোষ। 

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ, সাংবাদিকবৃন্দ, মাদ্রাসার শিক্ষক, ইমাম, ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যগণ এবং স্থানীয় নেতৃবৃন্দসহ ৩৫ জন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। ইউরোপীয় ইউনিয়নের অর্থায়নে  ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর মাইগ্রেশন পলিসি ডেভেলপমেন্ট (আইসিএমপিডি) পরিচালিত অভিবাসী তথ্য কেন্দ্র বাংলাদেশ (এমআরসি) এ আয়োজনে সহযোগিতা প্রদান করে।

প্রধান অতিথি অধ্যক্ষ মো: কামরুজ্জামান কুমিল্লা কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের চলমান ট্রেড কোর্সসমূহের বর্ণনা দেন এবং কোর্সে অংশগ্রহণ করে তরুণসমাজ যাতে নিজেদের দক্ষতা বৃদ্ধি করতে পারে তার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। বিশেষ অতিথি মাহমুদা আক্তার উপজেলা পর্যায়ে কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস স্থাপনের প্রস্তাব করেন এবং দালালদের দৌরাত্ন কমানোর জন্য কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের আহবান জানান।

এমআরসি বাংলাদেশের কোঅর্ডিনেটর মাহবুবুল আলম অভিবাসী তথ্য কেন্দ্র বাংলাদেশের লক্ষ্য, উদ্দেশ্য ও কার্যাবলি তুলে এবং অভিবাসন বিষয়ক যেকোন প্রয়োজনে এমআরসি বাংলাদেশের সাথে যোগাযোগের জন্য সকলকে আহবান জানান। বাগমারা (দক্ষিণ) ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো: লোকমান হোসেন নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ে ইউনিয়ন পরিষদ গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 

এছাড়াও এমআরসি কাউন্সিলর গোলাম মোস্তফা মানব পাচার রোধ এবং নিরাপদ অভিবাসনে ইউনিয়ন পরিষদের করণীয় নিয়ে আলোচনা করেন। 

কুমিল্লা জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসের সহকারী পরিচালক দেবব্রত ঘোষ তাঁর উপস্থাপনায় নিরাপদ, নিয়মিত, সুশৃঙ্খল এবং দায়িত্বশীল অভিবাসন নিশ্চিতকরণ, মানব পাচার রোধ, বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রক্রিয়ায় মধ্যসত্বভোগীদের দৌরাত্ব নিরসন, উচ্চ অভিবাসন ব্যয় হ্রাস, অভিবাসী কর্মীর অধিকার সুরক্ষা, অভিবাসী কর্মী ও তাদের পরিবারের নিরাপত্তা এবং কল্যাণ নিশ্চিতকরণে বর্তমান সরকারের দৃঢ় অঙ্গীকারের কথা ব্যক্ত করেন। তিনি বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতার গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা করেন। 

এছাড়াও তিনি বর্তমানে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সরকার ঘোষিত বিভিন্ন প্রণোদনার কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করেন। এছাড়াও তিনি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের মাধ্যমে প্রবাসীদের জন্য ঋণ এবং ঋণ পাওয়ার উপায় সম্পর্কে আলোচনা করেন।  
 
তিনি বলেন, জেনে বুঝে, প্রশিক্ষণ নিয়ে দক্ষ হয়ে বিদেশ গেলে, অর্থ সম্মান দুটোই পাওয়া যাবে। মিথ্যা তথ্যের উপর নির্ভর করে বা অন্যের প্রলোভনে বিদেশ যাওয়ার সিদ্ধান্ত না নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। এছাড়াও তিনি নিরাপদ অভিবাসনের বিভিন্ন আইন, বিধি ও নীতিমালা নিয়ে আলোচনা করেন এবং করোনাকালীন দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রাণালয়ের বিভিন্ন কল্যাণমূলক উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন। এছাড়াও নারী অভিবাসনের ঝুঁকি, সম্ভাবনা এবং সুবিধাসমূহ উল্লেখ করেন। 

কর্মশালায় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো, ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক, বোয়েসেল, বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে অবস্থিত শ্রম কল্যাণ উয়িং এবং বায়রা'র কার্যক্রম নিয়ে বিশদ আলোচনা করা হয়।
 
অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে কুমিল্লা জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসের সহকারি পরিচালক দেবব্রত ঘোষ অংশগ্রহণকারী সদস্যদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন এবং জনসাধারণের ভোগান্তি, প্রতারণা রোধে কার্যকর ভূমিকা পালনের অনুরোধ জানান।

তিনি জানান, ডিসেম্বর ২০২১ পর্যন্ত কুমিল্লা জেলার দেবীদ্বার, বরুড়া, ব্রাক্ষ্মণপাড়া, চান্দিনা, চৌদ্দগ্রাম, দাউদকান্দি, লাকসাম, মুরাদনগর, নাঙ্গলকোট, আদর্শ সদর, মনোহরগঞ্জ, সদর দক্ষিণ, তিতাস, বুড়িচং এবং লালমই উপজেলার ২০টি ইউনিয়নে এবং ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া জেলার ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া সদর, কসবা, সরাইল, নাসিরনগর, আশুগঞ্জ, আখাউড়া ও নবীনগর উপজেলার ১০ টি ইউনিয়নে এই ধরণের সচেতনতামূলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও কুমিল্লা জেলার মনোহরগঞ্জ, বুড়িচং, ব্রাক্ষ্মণপাড়া, দেবিদ্বার ও লাকসাম উপজেলার প্রায় ২০টি বাজার পর্যায়ে ক্যাম্পেইন করার পরিকল্পনা আছে। 

এসি

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি