ঢাকা, শনিবার   ২২ জুন ২০২৪

২শ’ বিঘা জমিতে বোরো আবাদ অনিশ্চিত (ভিডিও)

সালাহউদ্দিন বকুল, হিলি থেকে

প্রকাশিত : ১২:৫৬, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

দিনাজপুরের হিলিতে গভীর নলকূপের জমির মালিকানা নিয়ে দু’পক্ষের দ্বন্দ্বে ২শ’ বিঘা জমির বোরো আবাদ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য পাম্প তালাবদ্ধ করে রাখায় পানির অভাবে বোরো আবাদ করতে না পারায় চরম দুশ্চিন্তায় কৃষকরা।

১৯৮২ সাল থেকে উপজেলার বলরামপুর গ্রামের কৃষকেরা সমিতির মাধ্যমে বিএডিসির কাছ থেকে গভীর নলকূপ নিয়ে বোরোসহ বিভিন্ন ফসল চাষাবাদ করে আসছিলেন। 

কিন্তু গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর স্থানীয় ইউপি সদস্য বিনুল ইসলাম গভীর নলকূপটি তার নিজের জমিতে দাবি করে সেখানে তালা ঝুলিয়ে দেন। এর ফলে বীজতলাসহ চলতি বোরো মৌসুমে জমিতে সেচ দিতে পারছেননা কৃষক। এরই মধ্যে অনেক বীজতলা নষ্টও হয়ে গেছে। 

কৃষকরা বলেন, “৩ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বর বিনুল ইসলাম নলকূপের ঘরে তালা লাগিয়ে দেন। তাতে বীজতলায় পানি দেওয়া যাচ্ছেনা, বীজতলা নষ্ট হচ্ছে। এতোগুলো মানুষের পেটে লাথি মারা বিরাট অন্যায়। আমরা হতাশ হয়ে পড়েছি।”

অভিযুক্ত ইউপি সদস্যর দাবি গভীর নলকূপটি তার জমিতে অবস্থিত। ফসল ফলাতে সময়মতো কৃষকদের জমিতে পানি দেয়া হচ্ছে বলেও দাবি তার।

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য বিনুল ইসলাম বলেন, “গভীর নলকূপটি আমার জায়গায় বসানো হয়েছে, এটা ইউএনও মহোদয়ের কাছে বলা আছে। তালা লাগালেও ক্ষেত বাঁচাতে পানি দেওয়া হচ্ছে।”
 
স্থানীয় প্রশাসন বলছে, সেচ পাম্পের জমি নিয়ে বিরোধের সমাধান করা হয়েছে। বাকি জটিলতা সমাধানে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। 

সেচ কমিটির সভাপতি হাকিমপুর ইউএনও মোহাম্মদ নূর এ আলম বলেন, “স্থানীয় পর্যায়ে কৃষকদের যা যা সহায়তার প্রয়োজন হয় অবশ্যই আমরা সেটা পূরণ করবো।”

চলতি মৌসুমের রোরো আবাদ রক্ষায় দ্রুত জটিলতা নিরসনের দাবি কৃষকদের। 

এএইচ


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি