ঢাকা, শনিবার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, || আশ্বিন ১০ ১৪২৮

বরগুনায় করোনা উপসর্গ নিয়ে ২ জনের মৃত্যু

বরগুনা প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ২০:০৭, ২৭ এপ্রিল ২০২০ | আপডেট: ২০:১১, ২৭ এপ্রিল ২০২০

বরগুনা ম্যাপ

বরগুনা ম্যাপ

বরগুনা পৌর শহরের কেজিস্কুল এলাকায় করোনার উপসর্গ নিয়ে এক বৃদ্ধ (৭৫) ও এক যুবকের (২৭) মৃত্যু হয়েছে। বৃদ্ধকে রাতের আঁধারে কাউকে না জানিয়ে দাফন করেছেন স্বজনরা। তবে যুবকের নমুনা সংগ্রহ করে তার বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।

সোমবার (২৭ এপ্রিল) ভোর রাতে পৌর শহরের কেজিস্কুল ক্রোক এলাকার আইউব ম্যানশনের বাসিন্দা গোলাম সরোয়ার নান্টুর ছেলে মাইনুর রহমান নিশাত (২৭) মারা যান। 

স্বজনরা জানান, নিশাত কয়েকদিন ধরে জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। মধ্যরাতের পর তীব্র শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে চিকিৎসকদের সাথে যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু কোনো চিকিৎসক সাড়া দেননি। হাসপাতালে নেয়ার জন্য অ্যম্বুলেন্সের সাথে যোগাযোগ করেও পাওয়া যায়নি। পরে ভোররাতে ওই যুবকের মৃত্যু হয়। স্বাস্থ্য বিভাগ তার নমুনা সংগ্রহ করেছে, বাড়ি লকডাউন করেছে প্রশাসন। ওই যুবকের মৃত্যুর পর তার স্ত্রী পালিয়ে পাথরঘাটার নাচনাপাড়া ইউনিয়নের কাজিরহাট গ্রামে বাবার বাড়িতে চলে যান। স্থানীয়রা ওই বাড়িটি লকডাউন করে লাল নিশান টানিয়ে দিয়েছে।

এর আগে রোববার দিবাগত রাতে কেজিস্কুল এলাকার ডাক্তার বাড়ি সড়কে জ্বর ও শ্বাসকষ্টে এক বৃদ্ধ মারা যান। বৃদ্ধের স্বজনরা বিষয়টি গোপন রেখে রাতের আঁধারেই তাকে গ্রামের বাড়িতে দাফন করেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা জানান, মৃত বৃদ্ধ তার মেয়ে জামাই রিয়াজ খাঁনের বাসায় থাকতেন। তিনি জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে বাইরে ঘোরাফেরা করতেন। কিন্ত তার মৃত্যুর পর স্বজনরা বিষয়টি গোপন রেখে রাতেই গ্রামের বাড়ি ঢলুয়া ইউনিয়নে দাফন কার্য সম্পন্ন করেছেন।

যোগাযোগ করা হলে বৃদ্ধের মেয়ে জামাই রিয়াজ খান বলেন, তার শ্বশুড় আগে থেকেই নানা ধরনের রোগে আক্রান্ত ছিলেন, করোনার উপসর্গ ছিলোনা। পরিস্থিতি বিবেচনায় তাকে রাতেই দাফন করা হয়েছে।

বরগুনার সিভিল সার্জন হুমায়ুন শাহীন খান বলেন, মৃত যুবকের নমুনা সংগ্রহ করে বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। তবে বৃদ্ধের বিষয়টি স্বাস্থ্য বিভাগের জানা নেই। খোঁজখবর নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি