ঢাকা, শুক্রবার   ২৩ এপ্রিল ২০২১, || বৈশাখ ৯ ১৪২৮

করোনায় বিশ্বের শীর্ষ দশ ধনীর তালিকায় পরিবর্তন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৪:০৫, ১৩ জুলাই ২০২০ | আপডেট: ১৪:৫৫, ১৩ জুলাই ২০২০

(ছবি- সংগৃহীত)

(ছবি- সংগৃহীত)

করোনার কারণে ব্যবসায়-বাণিজ্যসহ গোটা বিশ্বের অর্থনীতি যখন সংকুচিত হলেও বিলিয়নিয়ার ধনীদের বড় অংশই ধনসম্পদে আরও ফুলে-ফেঁপে উঠেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্বখ্যাত বিজনেস ম্যাগাজিন ফোর্বস দুনিয়ার শীর্ষ ধনীদের নতুন তালিকা প্রকাশ করেছে। গত সপ্তাহে তাদের এ অবিশ্বাস্য রকমের টাকা বাড়ার বিষয়টি সামনে আনে ফোর্বস ম্যাগাজিন। নতুন তালিকার শীর্ষ দশে কোনো নারী বিলিয়নিয়ার নেই। ফোর্বস’র করা মার্চের তালিকায় থাকা যুক্তরাষ্ট্রের খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালটনের অ্যালিস ওয়ালটন ৯ম থেকে ছিটকে ১৭তম স্থানে নেমে গেছেন। 
 
অনলাইন কেনাবেচা বৃদ্ধির কারণে শেয়ারের দাম বাড়ায় বিল গেটসকে টপকে আবারও তালিকার শীর্ষে উঠে এসছেন আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) জেফ বেজোস ১৮ হাজার ৯২০ কোটি মার্কিন ডলার। এরপরের অবস্থানগুলোতে আছেন মাইক্রোসফটের বিল গেটস। তার সম্পদ ১১ হাজার ১১০ কোটি ডলার। তার অবস্থান দ্বিতীয়। বিশ্বে বিলাস পণ্যের বৃহত্তম কোম্পানি এলভিএমএইচের চেয়ারম্যান বার্নার্ড আর্নল্ট ও পরিবার ১০ হাজার ৯৬০ কোটি ডলার নিয়ে তৃতীয় স্থান ধরে রেখেছেন। ফেইসবুকের সহপ্রতিষ্ঠাতা যুক্তরাষ্ট্রের মার্ক জাকারবার্গ ৯ হাজার ২০ কোটি ডলার নিয়ে সপ্তম থেকে চতুর্থ স্থানে উঠেছেন। চতুর্থ স্থান থেকে অষ্টমে নেমে গেছেন বড় দাতা ও বিনিয়োগগুরু খ্যাত ওয়ারেন বাফেট। গত সপ্তাহে তিনি দাতব্য কাজের জন্য ২৯০ কোটি ডলার দান করায় ফোর্বস’র তালিকায় পিছিয়ে পড়েছেন। তালিকার শীর্ষ দশে অন্যদের মধ্যে মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা স্টিভ ব্যালমার ৫ম (৭,৪২০ কোটি ডলার), ওরাকলের সহপ্রতিষ্ঠাতা ল্যারি অ্যালিসন ষষ্ঠ (৭,৩৭০ কোটি ডলার), গুগলের সহপ্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেইজ নবম (৬,৮৭০ কোটি ডলার) এবং গুগলের আরেক প্রতিষ্ঠাতা সের্গেই ব্রিন দশম হয়েছেন (৬,৬৯০ কোটি ডলার)।

তালিকার সপ্তম অবস্থানে উঠে এসেছেন ভারতের শীর্ষ ধনী রিলায়েন্সর মালিক মুকেশ আম্বানি। এশিয়া ও ভারতের এক নম্বর ধনী মুকেশ আম্বানি ২১তম থেকে এক লাফে সপ্তমে উঠে আসেন। তিনি এই তালিকার শীর্ষ দশে স্থান পাওয়া প্রথম এশিয়ান। এক দিনে তাঁর আয় ৪৫ লাখ ডলার। ব্লুমবার্গের ২০১০ সালের বিলিয়নিয়ারের তালিকায় যেখানে মুকেশের সম্পদের পরিমাণ ছিল ২ হাজার ৭০০ কোটি ডলার, সেখানে ১০ বছর পরে তা আড়াই গুণের বেশি। 

ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, গত মার্চ মাসে মুকেশ আম্বানির রিলায়েন্সের শেয়ার দরে পতন নেমেছিল। এর কয়েক মাসে তা দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। শুক্রবার বৃদ্ধির নয়া রেকর্ড গড়ল রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ারের দর। লকডাউনে বিভিন্ন শিল্প সংস্থায় যখন তালা ঝোলার অবস্থা এর ঠিক উলটো ছবি রিলায়েন্সে। তাদের সম্পদ ক্রমশ ফুলে ফেঁপে উঠেছে। আর মুকেশ আম্বানির ক্রমবর্ধমান সম্পদ বৃদ্ধির নেপথ্যে মূল ভূমিকা নিয়েছে জিও প্ল্যাটফর্ম। 

উল্লেখ্য, ১০৩ বছরের পুরোনো ম্যাগাজিন ফোর্বস ১৯৮৭ সাল থেকে বিলিয়নার তালিকা প্রকাশ করে। তাদের তালিকায় বিশ্বের হাজার ৯৫ জন বিলিয়নিয়ার রয়েছেন। অন্যদিকে বিলিয়নিয়ারদের নিয়ে কাজ করা আরেক প্রতিষ্ঠান ওয়েলথ এক্স সম্প্রতি বলেছে, দুনিয়াজুড়ে ২ হাজার ৮২৫ জন বিলিয়নিয়ার আছেন।

এমএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি