ঢাকা, সোমবার   ১২ এপ্রিল ২০২১, || চৈত্র ২৮ ১৪২৭

অডিট প্রাকটিস সফটওয়্যার বিষয়ে আইসিএবি-র কর্মশালা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২১:১০, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

দি ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড একাউন্ট্যান্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএবি) বুধবার,  ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১  নিজস্ব মিলনায়তনে ‘অডিট প্রাকটিস সফটওয়্যার ফর সিএ ফার্ম ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক কর্মশালার আয়োজন করে। আইসিএবি ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং  আইসিএবি’র ক্যাপাসিটি বিল্ডিং ও প্রোজেক্ট ডেভেলপমেন্ট কমিটির অধীন ‘অডিট সফটওয়্যার ডেভেলপমেনট ফর সিএ ফার্ম ইন বাংলাদেশ’প্রোজেক্ট এর চেয়ারপারসন  মারিয়া হাওলাদার এফসিএ  এই অডিট প্রাকটিস সফটওয়্যার এর পরিচিতি মূলক একটি উপস্থপনা তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, এই সফটওয়্যার ব্যবহারে আইসিএবি সদস্যদের নিরীক্ষা কাজে দক্ষতা অনেক বৃদ্ধি পাবে, স্বল্প সময়ে এবং কম খরচে নিরীক্ষা কাজ সম্পন্ন করতে পারবে। এটি একটি স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা যেখানে নিরীক্ষা সংক্রান্ত সকল উপাত্ত, তথ্য সংরক্ষিত থাকবে এবং ফার্ম ব্যবস্থাপক তথ্য উপাত্তখুব সহজে ও দক্ষতার সাথে যাচাই করতে পারবে। 

আইসিএবি’ প্রেসিডেন্ট মাহমুদউল হাসান খসরু এফসিএ  বলেন,  ২০২১ আইসিএবি'র অটোমেশনের বছর। নিরীক্ষণ রিপোর্ট, কোয়ালিটি এস্যুরেন্স বোড এর  কার্যক্রম, ফাম পরিদর্শন ইত্যাদিসহ ইনস্টিটিউটের সমস্ত কাজ ডিজিটালাইজড করা হচচ্ছ। এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিং (ইআরপি) এর সুবিধাগুলির উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, সফ্টওয়্যার আমাদের জিনিস যেমনটি আমাদের চাহিদা তেমন করে তোলে। 

এটি আমাদের চটুলও করে তোলে, তিনি আরও বলেন যে চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস যেহেতু ব্যবসায়ের যে কোনও পরিবর্তনের প্রতি সর্বদা সচেতন, তাই তাদের অবশ্যই আইটি ভিত্তিক অডিট সফ্টওয়্যার গ্রহণ করার সুযোগ নিতে হবে। তিনি আরও বলেন, নিরীক্ষা অনুশীলনে আমাদের পিছিয়ে থাকা উচিত নয়, আমরা যদি সফ্টওয়্যার না নিই তবে আমরা অবশ্যই সাকুলেশণেরবাইরে চলে যাব।

আইসিএবি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শুভাশীষ বোস বলেন,  আমরা সবাই জানি, অডিট যে কোনও ব্যবসায়ের একটি প্রয়োজনীয় অংশ, বিশেষত যারা আইন ও নিরীক্ষামানকে কঠোরভাবে পরিপালন  করে তাদের জন্য। সনাতনী অডিট পদ্ধতিতে নিরীক্ষণকাজ করা যথেষ্ট  সময় সাপেক্ষ্য এবং প্রচুর কাগজপত্রের প্রয়োজন হয়। তবে অডিট সফ্টওয়্যার ব্যবহারে এসবের কিছু প্রয়োজন হবেনা 

যদিও আইসিএবি সদস্যরা একটি সম্মানিত পেশাদার অ্যাকাউন্টিং এর যোগ্যতা রাখে -যা এন্টারপ্রাইজ, কর্পোরেট প্রশাসন এবং ব্যবসায়ের পরিবেশে টেকসই বৃদ্ধির সহায়ক। তবে এখনও আমরা লক্ষ্য করছি যে আমাদের সদস্যদের বেশিরভাগই অডিট সফটওয়্যার ব্যবহার করে নিরীক্ষণ কাজ সম্পাদন করছে না।

আইসিএবি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ আবদুল কাদের জোয়াদ্দার সমাপনী বক্তব্য রাখেন। প্যানেল বক্তা হিসাবে আংশ নেন আইসিএবি’র সাবেক প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ ফারুক, কাউন্সিলর মেম্বার মো: মনিরুজ্জামান, ফেলো মেম্বার এস কে তারিকুল ইসলাম, আলী আমজাদ চৌধুরী, আল আমিন রেদোয়ানুর রহমান এবং মো. আব্দুল ওহাব আকন্দ। 

আরকে//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি