ঢাকা, বুধবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২২, || মাঘ ৫ ১৪২৮

জাপানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরো বৃদ্ধি পাবে : আমু

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:৫০, ২৪ অক্টোবর ২০১৮

জাপানের সঙ্গে বাংলাদেশ সরকারের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরো বৃদ্ধি পাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

বুধবার রাজধানীতে ঘোড়াশাল-পলাশ ইউরিয়া ফার্টিলাইজার প্রকল্পের চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

এসময় তিনি বলেন, বার্ষিক ৯ লাখ ২৪ হাজার মেট্রিক টন সার উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন ‘ঘোড়াশাল-পলাশ ইউরিয়া ফার্টিলাইজার প্রজেক্ট’ (জিপিইউএফপি)-এর কারখানা নির্মান প্রকল্পটি আমাদের অর্থনীতিতে বড় ধরণের অবদান রাখবে।

আজ রাজধানীতে বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশ (বিসিআইসি)এবং মিতসুবিশি হেভি ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড(এমএইচআই) ও চায়না ন্যাশনাল কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং কন্সট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেডের মধ্যে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

এ সময় শিল্প মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রানাধীন বিসিআইসি-এর পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন শাহ মো. আমিনুল হক। অন্যদিকে এমএইচআই জাপান কোম্পানির পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন সংস্থাটির ভাইস প্রেসিডেন্ট হ্যাজিমি ন্যাগানো এবং চায়না ন্যাশনাল কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং কন্সট্রাকশন কোম্পানির পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন কোম্পানির সিইও ওয়্যাং ড্যালিন।   

১০ হাজার ৪৬০ দশমিক ৯১ কোটি টাকার ঘোড়াশাল-পলাশ ইউরিয়া ফার্টিলাইজার প্রজেক্টের উন্নয়ন প্রকল্পটি চলতি বছরের ৯ সেপ্টেম্বর একনেক সভায় অনুমোদিত হয়।

অনুমোদিত এই প্রকল্পের জন্য বিডার ফাইন্যান্সের আওতায় ৮ লাখ ৬১৬ দশমিক ৭২ কোটি টাকা এবং বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে ১ হাজার ৮৪৪ দশমিক ১৯ কোটি টাকা সংস্থান করা হবে।  

বার্ষিক ৯ লাখ ২৪ হাজার মেট্রিক টন সার উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন ‘ঘোড়াশাল-পলাশ ইউরিয়া ফার্টিলাইজার প্রজেক্টের প্রকল্পটি ২০২২ সালে বাস্তবায়িত হবে।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাপানের রাষ্ট্রদূত হিরোইয়াসু ইজুমি।

এমএইচ/

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি