ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৯ নভেম্বর ২০২২

মামলার প্রতিবাদে দুই ঢাবি ছাত্রের অবস্থান

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৩:০৫, ১৯ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ১৮:৩৪, ২০ জানুয়ারি ২০১৮

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) প্রক্টর কার্যালয় ঘেরাও করে ভাংচুরের ঘটনায় শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার রাত ২টা থেকে রাজু ভাস্কর্যের সামনে অবস্থান নিয়েছেন দুই ঢাবি ছাত্র।

একজন হলেন, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র রাজীব কুমার দাশ এবং আরেকজন হলেন, অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের তৃতীয় বর্ষের মাহির শাহরিয়ার রেজা।

তাদের দুই পাশে দুটি প্ল্যাকার্ড। এতে লেখা আছে- ‘আমি ভাংচুরকারী আমাকে গ্রেফতার কর’, ‘আমি আন্দোলনকারী আমাকে গ্রেফতার কর’।

রাজীব জানান, বিশ্ববিদ্যালয় নিপীড়কদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিয়ে প্রতিবাদকারী শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। তাই এই প্রক্টরের পদত্যাগ চাই।

ঢাকার সাত সরকারি কলেজের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর গত সোমবার চড়াও হয় ছাত্রলীগ। ওই দিন ছাত্রলীগ কর্মীরা ছাত্রীদের নিপীড়ন করে বলেও আন্দোলনকারীদের অভিযোগ। এর প্রতিবাদে বুধবার প্রক্টর কার্যালয় ঘেরাও করে একদল শিক্ষার্থী।

শিক্ষার্থীদের আসতে দেখে ওই কার্যালয়ের ফটকে তালা আটকে দেওয়া হয়। ফলে শিক্ষার্থীরা গেইট ভেঙে ফেলেন। ‘ছাত্রী নিপীড়নে’ জড়িত ছাত্রলীগের আট নেতাকর্মীকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বহিষ্কার এবং ছাত্র প্রতিনিধিদের নিয়ে তদন্ত কমিটি করে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রতিবেদন প্রকাশের দাবি জানায় সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এ সময় প্রক্টরকে তারা তিন ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখেন।

পরে উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান শিক্ষার্থীদের দাবি পূরণের আশ্বাস দিলে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে সেখান থেকে ফিরে যায় আন্দোলনকারীরা।

শিক্ষার্থীদের দাবি অনুযায়ী ছাত্রী নিপীড়নের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে গত বৃহস্পতিবার একটি তদন্ত কমিটি গঠন করার কথা জানিয়েছেন উপাচার্য আখতারুজ্জামান। এছাড়া কলাভবনে ভাংচুরের ঘটনায় আরেকটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এই পরিস্থিতির মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা কর্মকর্তা মো. কামরুল আহসান খান ফটক ভাংচুরের ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকালে অজ্ঞাতপরিচয় ৫০ জনকে আসামি করে শাহবাগ থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা হওয়ার পর রাত ১২টার দিকে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করে প্রক্টর গোলাম রব্বানীর পদত্যাগ দাবি করেন একদল শিক্ষার্থী। সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মামলা প্রত্যাহার ও প্রক্টরের পদত্যাগ দাবিতে শুক্রবার বিকাল ৫টায় মশাল মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। পরে রাত ২টার দিকে সেখানে অবস্থান নেন রাজীব ও মাহির। 

একে//এসএইচ


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি