ঢাকা, সোমবার   ১৭ জানুয়ারি ২০২২, || মাঘ ৩ ১৪২৮

আরিয়ানের বিরুদ্ধে স্বাক্ষী দিতে টাকা দেওয়ার অভিযোগ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৬:৪৮, ২৪ অক্টোবর ২০২১

শাহরুখ-পুত্র আরিয়ান খানের বিরুদ্ধে মিথ্যা সাক্ষী দেয়ার জন্য নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি) টাকা দিয়েছে। রোববার এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন ওই মামলার এক সাক্ষী।

এ দিকে ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যমে ওই সাক্ষীর এমন মন্তব্য প্রকাশ পাওয়ার সাথে সাথেই ঘটনাটিকে ‘মিথ্যা রটনা’ বলে দাবি করেছে এনসিবি। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা বলেছে, ঠিক সময়ে এর জবাব দেবে তারা।

জানা যায়, আরিয়ান খানকে গ্রেফতারের ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই একটি ছবি ছড়িয়ে পড়ে চার দিকে। তার সাথে সেলফি তুলতে দেখা গিয়েছিল এক ব্যক্তিকে। সেই ব্যক্তির নাম কিরণ পি গোসাভি। প্রথমে মনে করা হয়েছিল কিরণ এনসিবি-র কোনো এক কর্মকর্তা। অনেকেই সে সময় প্রশ্ন তোলেন আরিয়ানের সাথে কিরণের ওই সেলফি নিয়ে। 

এর পর এনসিবি-এক বিবৃতিতে জানায়, কিরণ তাদের কেউ নন। শুধু তা-ই নয়, কিরণকে এই মামলার অন্যতম সাক্ষী হিসেবে তুলে ধরে তার খোঁজ চালায় এনসিবি। যদিও কিরণ ওই ঘটনার পর থেকেই পলাতক।

এদিকে কিরণের সহযোগী প্রভাকর সেইল জানিয়েছেন, তদন্তকারী সংস্থা তাকে ফাঁকা স্টাম্পে সই করিয়েছে। এনসিবি কর্মকর্তা সমীর ওয়াংখেড়ের কাছ থেকে বিপদের আশঙ্কা করছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

প্রভাকরের দাবি, কিরণ ‘রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ’ হয়ে যাওয়ার পর থেকেই সমীরকে নিয়ে এই ধরনের ভাবনা শুরু হয়েছে তার। এমনকি জীবনের ঝুঁকি রয়েছে বলেও দাবি প্রভাকরের। 

কিরণের দেহরক্ষী বলে নিজের পরিচয় দিয়ে তিনি দাবি করেন, শাহরুখ-পুত্রের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে ১৮ কোটি টাকার চুক্তি হয়েছে বলে তিনি শুনেছেন।

এনসিবি-র প্রশ্ন, তাই যদি হয়, তাহলে এত দিন আরিয়ান জেলেবন্দি থাকেন কী করে? তাছাড়া তাদের দফতরে একাধিক সিসিটিভি রয়েছে, ফলে দফতরে বসে যা ইচ্ছা তাই করা যায় না বলেও জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। ফলে প্রভাকরের এই অভিযোগ ‘সম্পূর্ণ মিথ্যা’ বলে উড়িয়ে দিয়েছে এনসিবি।

কিন্তু এতেই বিতর্ক থামছে না। কারণ বলিউডের একাংশ এবং বেশ কিছু রাজনীতিবিদ দাবি করেছেন, শাহরুখের ছেলেকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

এমএম//এসি

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি