ঢাকা, শনিবার   ১৭ এপ্রিল ২০২১, || বৈশাখ ৩ ১৪২৮

এনআরসি বিরোধী বিক্ষোভে বুদ্ধিজীবীরাও

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:৪৯, ২৬ ডিসেম্বর ২০১৯

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (এনআরসি) বিরুদ্ধে বিক্ষোভে উত্তাল গোটা ভারতবর্ষ। খ্রিস্টানদের ধর্মীয় উৎসব ‘ক্রিসমাস ডে’ উপলক্ষে বুধবার ভারতজুড়ে ছুটি থাকলেও এর মাঝেই বিভিন্ন অঞ্চলে বিক্ষোভ হয়েছে। এবার দিল্লীতে এনআরসি বিরোধী বিক্ষোভে যোগ দিলেন বুদ্ধিজীবীরাও।

বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন বাতিলের দাবিতে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাবেশে যোগ দেন বিখ্যাত লেখিকা ও সমাজকর্মী অরুন্ধতী রায়। তিনি দেশজুড়ে আন্দোলনের মাঝে আদমশুমারি (এনপিআর) করার সিদ্ধান্তেরও বিরোধিতা করেন।

অরুন্ধতী বলেন, এনপিআরকে এনআরসির (জাতীয় নাগরিক তালিকা) ডেটাবেজ হিসেবে ব্যবহার করা হবে। জনগণকে এর বিরোধিতায় নামার আহ্বান জানান তিনি। প্রয়োজনে ভুল নাম-ঠিকানা ব্যবহারের কথা বলেছেন তিনি।

এনআরসি ইস্যুতে দেয়া ভাষণে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি মিথ্যাচার করেছেন বলেও অভিযোগ করেন এই লেখিকা। অরুন্ধতী বলেন, নতুন নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি দেশের মুসলিমদের লক্ষ্য করেই প্রণয়ন করা হয়েছে।

দিল্লি ছাড়াও এদিন পশ্চিমবঙ্গ, মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশে বিক্ষোভে বিশাল জমায়েত হয়। মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেসের নেতৃত্বে বিশাল মিছিল বের হয়। কানপুরে বিক্ষোভকালে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে জনতা।

এদিকে চারদিকে বিরূপ পরিস্থিতিতে নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি নিয়ে ভোল পাল্টেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। মোদির সঙ্গে সুর মিলিয়ে তিনি বলছেন, দেশজুড়ে এনআরসি চালুর সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি।

এনপিআর নিয়েও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিসহ বিভিন্ন নেতার সঙ্গে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী মোদি বুধবারও উত্তরপ্রদেশের লখনৌতে ভাষণে নাগরিকত্ব আইনের পক্ষে সাফাই গান। ভারতের সংসদে পাস হওয়া নতুন ওই আইন অনুযায়ী, প্রতিবেশী দেশগুলো থেকে যাওয়া অমুসলিমদের দেশটিতে নাগরিকত্ব দেয়া হবে।


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি