ঢাকা, শুক্রবার   ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

আশুলিয়ায় স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামী পলাতক

সাভার প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ২০:০৯ ১৪ নভেম্বর ২০১৯

রাজধানী ঢাকার অদূরে শিল্পাঞ্চল আশুলিয়ায় স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামী পালিয়েছে বলে অভিযোগ নিহতের স্বজনদের। বৃহস্পতিবার সকালে গাজীরচট এলাকার মাটির মসজিদের নিকট জসিমের বাড়ীতে এঘটনা ঘটে। নিহত গৃহবধূ শিউলি আক্তার (১৯) তার স্বামী সাইফুল ইসলামের সাথে ভাড়া বাড়ীতে বসবাস করতেন। ঘাতক সাইফুল ঢাকা রপ্তানী প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলের নতুন জোনের একটি পোশাক কারখানার শ্রমিক। নীলফামারী জেলার বাসিন্দা। নিহত শিউলি সিরাজগঞ্জ জেলার কাজীপুর থানার গান্ধাইল গ্রামের সোনা উল্লাহর মেয়ে।

প্রতিবেশী ও বাড়ীর মালিকের স্ত্রী আমেনা আক্তার রুমা বলেন, গত আট মাস পূর্বে পাঁচ লাখ টাকা দেনমোহরে তাদের বিয়ে হয়। এখানে টিনসেড একটি কক্ষে স্বামী-স্ত্রী বসবাস করতো। সকাল সাড় আটটার দিকে তাদের কক্ষ থেকে কাপড় পোড়ানোর ধোয়া দেখে চিৎকার করতে থাকে। এরপর কক্ষের ভেতরে গিয়ে বোতলের কেরোসিন মেঝেতে ও খাটের উপর স্ত্রী শিউলির অচেতন দেহ দেখে আমাকে খবর দেয়। আমি এখানে এসে শিউলির স্বামী সাইফুলকে দৌড়ে পালিয়ে যেতে দেখি। এবং শিউলির মৃতদেহ খাটের উপর দেখে থানা পুলিশ ও তার স্বজনদের খবর দেই।

নিহতের বড় বোন আমেনা বেগম বলেন, সকালে আমাকে ফোনে বাড়ীর মালিকের স্ত্রী আমার বোনের মৃত্যুর সংবাদ দেয়। আমার বোন শিউলিকে তার স্বামী হত্যা করে পালিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বিয়ের পরই বিভিন্ন সময় স্বামী সাইফুল যৌতুকের জন্য ছোট বোন শিউলিকে মারধর করতো। বোনকে মারধরের হাত থেকে রক্ষা করতেই আমরা তিন লাখ টাকা যৌতুক দিয়েছি। আমার বোন চার মাসের অন্ত:সত্তা ছিলো।  

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) নুরুল হুদা ভুঁইয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সকালে বাড়ীর মালিকের নিকট থেকে মুঠোফোনে সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল ধেকে লাশটি উদ্ধার করেছি। নিহতের দেখের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে নিহতের স্বামীই তাকে হত্যা করে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যার ঘটনা সাজাতে চেয়েছিলো। ঘাতক স্বামী পলাতক রয়েছে। এই ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ তেকে থানায় একটি হত্যা মামলার অভিযোগ দায়ের করেছেন। পলাতক স্বামী সাইফুলকে আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। নিহত গৃহবধুর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানী ঢাকার সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। 

কেআই/আরকে
 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি