ঢাকা, ২০১৯-০৬-১৯ ৩:০৫:৪৪, বুধবার

Ekushey Television Ltd.

‘ওরা চোখের সামনে আমার স্বামীকে গুলি করে হত্যা করে’

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০১:১৮ পিএম, ১০ জুন ২০১৯ সোমবার | আপডেট: ০৩:৪২ পিএম, ১০ জুন ২০১৯ সোমবার

পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগণার সন্দেশখালিতে তৃণমূল কংগ্রেস-বিজেপির সংঘর্ষের ঘটনায় সেখানে উত্তেজনা বিরাজ করছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। তবে, রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে বলে সাফ জানিয়েছে দিয়েছে স্থানীয় সরকার।

গেল শনিবার দলীয় পতাকা উত্তোলনকে কেন্দ্র করে তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছে। নিহতদের তিনজন বিজেপি ও একজন তৃণমূল সদস্য বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম। নিহত বিজেপি সদস্য প্রদীপ মন্ডলের স্ত্রী পদ্মা মন্ডল রোববার বলেন, দুষ্কৃতিকারীরা চোখের সামনেই আমার স্বামীকে হত্যা করেছে।

তিনি বলেন, ‘শাহজাহান মোল্লা এবং তার বাহিনী ৪০০-৫০০ লোক নিয়ে হামলা করে। এর আগে আমি কখনো এমন নির্মতা দেখিনি।

পদ্মা মন্ডল বলেন, ওরা আমার বাড়ির দিকে ছুটে আসতে থাকে। ভয় পেয়ে ছুটতে শুরু করি আমরা। আমার স্বামী বাইকে চেপে স্থান ত্যাগ করার চেষ্টা করে কিন্তু ওরা দেখতে পেয়ে যায়। ওরাও দৌড় শুরু করে। কিছুক্ষণের মধ্যেই আমি গুলির শব্দ শুনতে পাই।

এবারের লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে সংঘর্ষের খবর পাওয়া যাচ্ছে। বিজেপি আগের সমস্ত নজির ভেঙে ১৮টি আসনে জয়ী হওয়ার পর থেকে বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেই চলেছে।

কান্না  ভেজা গলায় পদ্মা মন্ডল আরও বলেন, বাহিনী আসার খবর পেয়ে আমরা উদভ্রান্তের মত এদিক-সেদিক দৌড়াতে শুরু করি। আমি এবং আমার স্বামী কী করবো বুঝতে পারছিলাম না। ভয় পেয়ে আমি প্রতিবেশীর বাড়ির ছাদে গিয়ে উঠি। কিন্তু আমার স্বামীকে ওরা ধরে ফেলে। আমি ওই বাড়ির ছাদ থেকে সব দেখেছি। ওরা আমার চোখের সামনে আমার স্বামীকে গুলি করল। প্রথমে হাতাহাতি আর তার কিছুটা বাদে ওঁর ডান চোখে গুলি চালাল দুষ্কৃতীরা। ছাদে দাঁড়িয়ে আমার চোখের সামনে স্বামীর মৃত্যু দেখলাম।

এদিকে শনিবারের ঘটনায় রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে রাজ্য সরকারকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রলায়ের তরফ থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

সূত্র: এনডিটিভি

আই/টিআর

 

ফটো গ্যালারি



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি