ঢাকা, রবিবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, || অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৮

কথায় কথায় গ্যাসের ওষুধ? কী হচ্ছে?

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:১১, ২১ নভেম্বর ২০২১

বহু মানুষ আছেন, যারা কথায় কথায় গ্যাসট্রিকের ওষুধ খেয়ে নেন। এই অভ্যাসের ফলে নিজের কত বড় ক্ষতি যে ডেকে আনছেন তারা, তা বুঝতেই পরেন না। বিভিন্ন সমস্যার পাশাপাশি এর ফলে হতে পারে ক্রনিক কিডনি ডিজিজও। তাই আজ থেকেই সাবধান হওয়া উচিত।

এই ওষুধগুলিকে বিজ্ঞানসম্মত ভাষায় পিপিআই বা প্রোটোন পাম্প ইনহিবিটর বলে। সাধারণত অ্যাসিডিটি, বদহজম, পেপটিক আলসারের ক্ষেত্রে এই ওষুধ ব্যবহার হয়।

কিন্তু সমস্যা হচ্ছে গ্যাসট্রিকের ওষুধ দোকানে প্রেসক্রিপশন ছাড়াই বিক্রি হয়। যদিও বিশেষজ্ঞের পরামর্শ ছাড়া এ ওষুধ খাওয়া উচিত নয়। কারণ চিকিৎসকরাই জানেন এই ওষুধের ডোজ কতটা দিতে হবে, আর সেই অনুযায়ীই খেতে হবে। 

না হলে এক অসুখ ভালো করতে গিয়ে দেখা দিবে অন্য সমস্যা। তাই বিনা কারণে অহেতুক এই ওষুধ খেতে নিষেধ করেন চিকিৎসকরা।

এ ওষুধের ভুল প্রয়োগে বিভিন্ন সমস্য়া হতে পারে। এমনকী সার্বিক স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ারও শঙ্কা রয়েছে।
 
গবেষণা বলছে, টপাটপ গ্যাসট্রিকের ওষুধ খেলে ক্রনিক কিডনি ডিজিজ, অ্যাকুউট কিডনি ডিজিজ ইত্যাদি রোগ দেখা দেওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই কিডনি বিশেষজ্ঞরা এই বদঅভ্যাস নিয়ে বিশেষ রকম সতর্ক করেছেন।

তবে দোষ কেবল সাধারণ মানুষের নয়। অনেক বিশেষজ্ঞরাও গ্যাসট্রিকের ওষুধ ব্যবহার নিয়ে তেমন আমল দেন না বলে বিভিন্ন স্তর থেকে অভিযোগ উঠে আসছে। 

অনেকের মতে, এই সকল বিষয়গুলি কেবল জার্নালের পেজেই আবন্ধ থাকে, তার বাইরে কোনও প্রচার নেই। তাই সকলের পক্ষে এই বিষয়টি জানা সম্ভব নয়। 

তবে বর্তমানে এই সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ছে বলেই মত দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। তাই অচিরেই এই সমস্যা থেকে সমাধান মিলবেন বলে আশাবাদি তারা।

সূত্র: এই সময়
এমএম/এসএ
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি