ঢাকা, রবিবার   ১১ এপ্রিল ২০২১, || চৈত্র ২৭ ১৪২৭

চার লক্ষাধিক মূল্যের সেই এয়ারগান উদ্ধার

নড়াইল প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১২:৪৬, ৭ এপ্রিল ২০২১

এয়ারগান হাতে অভিযুক্ত নাসিম রেজা

এয়ারগান হাতে অভিযুক্ত নাসিম রেজা

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার পুরুলিয়া ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম (৪৮) গুলিবিদ্ধের ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সেইসঙ্গে উদ্ধার করা হয়েছে ছিনতাইকৃত এয়ারগান। মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৯টার দিকে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এসব তথ্য জানিয়েছেন পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায় পিপিএম (বার)। 

এদিকে, গুলিবিদ্ধ নজরুল ইসলাম খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। সে কালিয়া উপজেলার চন্দ্রপুর গ্রামের মনজুর আলীর ছেলে।

পুলিশ সুপার জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে ঘটনার সঙ্গে জড়িত দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরমধ্যে ঘটনার মূলহোতা যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার আন্দুলবাড়িয়া গ্রামের নাসিম রেজা (২০) এবং তার সহযোগী একই গ্রামের সুমান্ত বিশ্বাস (১৫)। তাদের নামে কালিয়া থানায় মামলা হয়েছে।

কালিয়া থানার ওসি সেখ কনি মিয়া ও আমানুল্লাহ আল বারীর নেতৃত্বে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে নিজ এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল পার্শ্ববর্তী কালিয়ার চাঁচুড়ি এলাকার একটি বাঁশবাগান থেকে ছিনতাইকৃত এয়ারগান উদ্ধার করা হয়েছে। শুটারের কাজে ব্যবহৃত এই এয়ারগানটির মূল্য চার লক্ষাধিক টাকা।

পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায় আরও বলেন, গত ৫ এপ্রিল সন্ধ্যা ৭টার দিকে নজরুল ইসলাম তার বাড়ির সামনে মুখের বামপাশের চোয়াল গুলিবিদ্ধ হন। তথ্য অনুসন্ধান করে দেখা যায়, নজরুল তার ব্যক্তিগত এয়ারগান বিক্রির জন্য গত কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন লোকজনের সঙ্গে কথাবার্তা বলেন। এই সূত্র ধরে গত সোমবার সন্ধ্যায় ঘটনার মূলহোতা নাসিম রেজাসহ তার সহযোগী সুমান্ত বিশ্বাস ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেলে নজরুলের বাড়ির সামনে আসেন। দরদামের একপর্যায়ে নাসিম রেজা ভূক্তভোগী নজরুলকে ওই এয়ারগান দিয়ে গুলি করে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের ভয়ে এয়ারগানটি তাৎক্ষণিক বাঁশবাগানে ফেলে পালিয়ে যায় তারা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ওই বাঁশবাগান থেকে এয়ারগানটি নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল নাসিমের। তবে তার আগেই পুলিশের খাঁচায় বন্দি হয় নাসিমসহ তার সহযোগী।

এদিকে নাসিম রেজা দাবি করে বলেন, আমি জাতীয় পর্যায়ের শুটার। এজন্য শুটারের কাজে ব্যবহার করতে এয়ারগানটি কিনতে এসেছিলাম। এয়ারগানের মালিক নজরুল ইসলাম আমার (নাসিম) সঙ্গে গালিগালাজসহ বাজে ব্যবহার করায় রাগের বশে গুলি করেছি।

সুমান্ত বিশ্বাস জানায়, ভ্যান কেনার কথা বলে প্রতিবেশি নাসিম তাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে আসেন। কিন্তু, এয়ারগান কিনতে আসার কথা নাসিম তাকে জানায়নি।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি