ঢাকা, বুধবার   ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ঝালকাঠিতে চাঞ্চল্যকর নারী হত্যা মামলায় দু’জনের মৃত্যুদণ্ড

ঝালকাঠি প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ২২:১৬ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ঝালকাঠিতে চাঞ্চল্যকর আনোয়ারা বেগম হত্যা মামলার দুই আসামি শেখ হাসান ও পিল্টনকে ফাঁসি এবং অপর তিন আসামিকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার দুপুরে ঝালকাঠির অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ শেখ মো. তোফায়েল হাসান এ রায় ঘোষণা করেন। চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলার রায়ে সর্বস্তরের এলাকাবাসী সন্তোষ প্রকাশ করেছে। 

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- সদর উপজেলার শেখেরহাট ইউনিয়নের রাজপাশা গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে খায়রুল আলম ওরফে শেখ হাসান এবং একই গ্রামের মৃত জালাল সরদারের ছেলে পিল্টন। আর যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিতরা হলেন- একই গ্রামের আবুল হোসেনের দুই ছেলে রিপন মিয়া, সালাম মিয়া ও আব্দুস সোবাহানের ছেলে সাহাদাৎ হোসেন।
 
মামলার বিররণে জানা যায়, ২০০২ সালের ১৭ মে রাতে ঝালকাঠি সদর উপজেলার শেখেরহাট ইউনিয়নের রাজপাশা গ্রামে আনোয়ারা বেগমের ছেলে লিটন সিকদারকে হত্যা ও তাদের বাড়িতে ডাকাতি করতে আসে দণ্ডিতরা। এসময় লিটন সিকদারের মা আনোয়ারা বেগম কুপি জ্বালিয়ে দিলে আসামিদের চেহারা দেখে চিনে ফেলেন। 

পরেরদিন তিনি স্থানীয় এলাকাবাসী ও গণ্যমান্যদের কাছে অভিযোগ করে আসামিদের বিচার দাবি করলে আসামিরা বেকায়দায় পড়ে এবং ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য লিটনের মা আনোয়ারা বেগমকে কুপিয়ে হত্যা করে। 
    
এ ঘটনার পরদিন সদর থানায় একাটি মামলা হলেও পরে গোয়েন্দা পুলিশ (সিআইডি) ২০০৩ সালের ১০ অক্টোবর একই এলাকার ৭ জনকে আসামি করে একাটি হত্যা মামলা দায়ের করে। পরে ২০০৪ সালের ২১ ডিসেম্বর সিআইডি আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। 

দীর্ঘ শুনানি ও ১৫ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণের পর দোষী প্রমাণিত হওয়ায় আজ এ রায় ঘোষণা করেন আদালত। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। একই সঙ্গে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলার অপর দুই আসামি গিয়াস ও মামুনকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত। 

এসময় রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট এম আলম খান কামাল এবং আসামি পক্ষে ছিলেন আব্দুর রশিদ শিকদার।

এনএস/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি