ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

টানা তিন সেঞ্চুরিতে হৃদয়ের বিশ্বরেকর্ড

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৭:২৯ ১৯ নভেম্বর ২০১৯

টানা তিন সেঞ্চুরী হাঁকানো তৌহিদ হৃদয়

টানা তিন সেঞ্চুরী হাঁকানো তৌহিদ হৃদয়

শ্রীলঙ্কান যুবাদের বিপক্ষে আগের তিন ম্যাচের ধারাবাহিকতা আজও ধরে রাখলেন টাইগার যুবা তৌহিদ হৃদয়। সিরিজের শেষ ম্যাচেও সেঞ্চুরি হাঁকালেন এই মিডল অর্ডার। যা তাকে এনে দিল অনন্য এক অর্জন। যুব ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টানা তিন ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকানোর বিশ্বরেকর্ড গড়লেন তিনি। 

আজ মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) চট্রগ্রামের জহুরুল আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে হৃদয়ের ১১১ রানের ইনিংসে চড়ে ২৮৩ রানের বড় সংগ্রহের দেখা পেয়েছে স্বাগতিক যুবারা।

সিরিজ নিশ্চিত হয়েছে আগেই, তাই নিয়মরক্ষার এ ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় স্বাগতিকরা। ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় যুবারা। ম্যাচের প্রথম ওভারেই হারিয়ে বসে উইকেট। 

নিয়মিত ওপেনার তানজিদ হাসানের বিশ্রামে এদিন একাদশে সুযোগ পেয়েছিলেন প্রিতম কুমার। তবে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি তিনি। মাত্র ১ রান করে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন তিনি।

তার বিদায়ের পর দলের হাল ধরেন সাজিদ হোসেন ও প্রান্তিক নওরোজ। প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দিয়ে এ দু’জনে গড়েন ৫৭ রানের জুটি। ৪২ বলে ২১ রান করে সাজিদ আউট হলে ক্রিজে আসেন ফর্মের তুঙ্গে থাকা হৃদয়।

পুরো সিরিজজুড়ে দাপুটে ব্যাট করা হৃদয় শুরু থেকেই ছিলেন আক্রমণাত্মক। দ্রুতগতিতে রান তুলতে থাকেন তিনি। তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে স্কোরবোর্ডকে এগিয়ে নিতে থাকেন নওরোজও। দ্রুতই দেখা পেয়ে যান হাফসেঞ্চুরির। তবে মাইলফলক স্পর্শের পর বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি তিনি।
    
দিলুম সুধেরার বলে রোহান সানজায়ার হাতে ক্যাচ দিলে থামে তার ইনিংস। আউটের আগে অবশ্য ৭৭ বলে করেন ৪ ও ২ ছক্কায় ৬৫ রান। ফলে দলীয় ১২৭ রানে তৃতীয় উইকেট হারায় স্বাগতিকরা।

মাঝপথে এসে সেট ব্যাটসম্যানকে হারালেও এর প্রভাব ম্যাচে পড়তে দেননি হৃদয়। রানের চাকা সচল রেখে দলের সংগ্রহ বাড়িয়ে নিয়ে ছুটতে থাকেন তিনি। চতুর্থ উইকেটে পারভেজ হোসেনের সঙ্গে গড়েন ইনিংসের সেরা ১০০ রানের জুটি। 

৩৮ রান করে পারভেজের বিদায়ের পরই দ্রুত সাজঘরের পথ ধরেন শামীম হোসেন (১) ও আকবর আলী (২)। নির্ভরযোগ্য দুই ব্যাটসম্যানের দ্রুত বিদায়ে কিছুটা ভাটা পড়ে শেষদিকের রান তোলার গতিতে। তবে এমন চাপের মধ্যেও আরও একবার নিজের সামর্থ্যর প্রমাণ দেন হৃদয়।

যুব ক্রিকেট ইতিহাসে টানা তিন ম্যাচে সেঞ্চুরি করার বিশ্বরেকর্ড গড়ে দলকে বড় সংগ্রহ এনে দেন তিনি। ক্যারিয়ারের পঞ্চম সেঞ্চুরির পাশাপাশি চলতি সিরিজে টানা তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেনে তিনি।

শেষ পর্যন্ত তার ১১১ রানের ইনিংসে চড়ে ৭ উইকেটে ২৮৩ রানের পূঁজি পায় স্বাগতিক যুবারা। রেকর্ড গড়া ইনিংসটি সাজান তিন চার ও ৫ ছক্কায়।

এর আগে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে ১২৪* ও চতুর্থ ওয়ানডেতে ১১৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছিলেন হৃদয়। এর আগে দ্বিতীয় ম্যাচেও করেন ৮২ রান। 

এদিকে চতুর্থ ওয়ানডেতে সেঞ্চুরির মাধ্যমে ইতিমধ্যে বাংলাদেশ অনুর্ধ-১৯ দলের হয়ে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছেন তিনি। আর আজকের সেঞ্চুরির মাধ্যমে যুব ক্রিকেট ইতিহাসে বিশ্বে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির তালিকার তৃতীয়তে  এখন তিনি। 

সর্বোচ্চ ৬ সেঞ্চুরি করে হৃদয়ের উপরে আছেন পাকিস্তানের সামি আসলাম। 

এনএস/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি