ঢাকা, শুক্রবার   ১৪ আগস্ট ২০২০, || শ্রাবণ ৩০ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

দক্ষিণ আফ্রিকায় চার্চের জিম্মিরা উদ্ধার; নিহত ৫

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:২৬ ১২ জুলাই ২০২০ | আপডেট: ১২:২৭ ১২ জুলাই ২০২০

পুলিশের নির্দেশে সন্দেহভাজন হামলাকারীরা মাটিতে উপুড় হয়ে শুয়ে আছে- দক্ষিণ আফ্রিকা পুলিশ

পুলিশের নির্দেশে সন্দেহভাজন হামলাকারীরা মাটিতে উপুড় হয়ে শুয়ে আছে- দক্ষিণ আফ্রিকা পুলিশ

দক্ষিণ আফ্রিকার অন্যতম বড় শহর জোহানেসবার্গের পশ্চিমাঞ্চলে একটি চার্চে বন্দুকধারীরা ঢুকে পড়ার পর ৫ জন নিহত হয়েছেন। নেতৃত্ব নিয়ে বিরোধের জেরে এই ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম দাবি করেছে। তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় দ্রুত হামলাকারীদের আটক করায় আরও ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞ এড়ানো সম্ভব হয়েছে বলে দাবি করেছে স্থানীয় পুলিশ। খবর বিবিসি ও আল জাজিরা’র। 

স্থানীয় প্রশাসনের বরাতে আল জাজিরা জানায়, শনিবার সকালের দিকে জুরবেকম এলাকার ইন্টারন্যাশনাল পেন্টেকোস্ট হোলিনেস চার্চে বিভিন্ন ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় প্রায় অর্ধশত হামলাকারী। জিম্মি পরিস্থিতির মতো ঘটনার পর বেশ কয়েক জন নারী, শিশু ও পুরুষকে উদ্ধার করা হয়েছে। অন্তত ৪০ জনকে গ্রেফতারের পাশাপাশি অস্ত্র উদ্ধারের কথাও জানা যায়। 

পুলিশের মুখপাত্র বিষ্ণু নাইদু স্থানীয় টেলিভশনে দেয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, অন্তত ৪০ হামলাকারীকে আটক করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে ৪০টি রাইফেল, শটগান, হ্যান্ডগান ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া হামলাকারীদের হাতে জিম্মি হওয়া নারী, পুরুষ, শিশুদের উদ্ধার করা হয়েছে। তারা ঐ চার্চটিতেই বসবাস করতেন বলে জানা গেছে। তবে মোট কতজনকে উদ্ধার করা হয়েছে তা নিশ্চিত করেননি এ কর্মকর্তা।

শনিবার স্থানীয় সময় বিকেল তিনটা নাগাদ জুরবেকম এলাকার চার্চটিতে পুলিশ ডাকা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার পর সেখান থেকে বেশ কিছু অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

উল্লেখ্য, ইন্টারন্যাশনাল পেন্টেকোস্টাল হোলিনেস চার্চের পুরনো নেতা ২০১৬ সালে মারা যান। তারপর থেকেই এটির নেতৃত্ব নিয়ে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ চলছিল। ২০১৮ সালেও একবার চার্চটির সদস্যদের মধ্যে গোলাগুলির পর পুলিশ ডাকা হয়। শনিবারের ঘটনার পরও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, এদিনে চার্চে অস্ত্র নিয়ে ঢুকে পড়া ব্যক্তিরা সেখানকার সদস্য ছিলেন।

এমএস/
 


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি