ঢাকা, রবিবার   ১৩ জুন ২০২১, || জ্যৈষ্ঠ ২৯ ১৪২৮

দুর্ঘটনার পর পাল্টে গেছে ঘাটের চিত্র (ভিডিও)

মাদারীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১১:০৬, ৬ মে ২০২১

বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে মাদারীপুরের শিবচরে স্পিডবোট দুর্ঘটনায় ২৬ জন নিহতের পর পাল্টে গেছে ঘাটের চিত্র। ঘাট এলাকা এখন জনমানবহীন। ফেরি ছাড়া অন্য কোনো নৌযান ছেড়ে যাচ্ছে না। দুর্ঘটনার পর যাত্রীদের আনাগোনাও কমেছে। এ ঘটনায় একটি মামলা হলেও গ্রেফতার হয়নি কেউ। 

লকডাউনের মধ্যে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রশাসনের চোখের সামনে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার রুটে চলাচল করছিল স্পিডবোট। গত সোমবার দুর্ঘটনায় ২৬ জন নিহতের পর টনক নড়ে সবার। এখন এই ঘাট দিয়ে যাত্রী নিয়ে চলাচল করছে না কোনো ইঞ্জিলচালিত নৌকাও। দুর্ঘটনার পর কমেছে যাত্রীদের যাতায়াত।

বিআইডব্লিউটিএ জানায়, লকডাউনে সব ধরনের নৌযান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে মাইকিংসহ ইজারাদারদের চিঠি দেয়া হয়েছিল। দুর্ঘটনা তদন্তে কাজ করছে জেলা প্রশাসনের ৬ সদস্য ও নৌপরিবহন অধিদপ্তরের তিন সদস্যের কমিটি।

শিবচর ডিআইডব্লিউটিএ ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মো. আক্তার হোসেন বলেন, সরাসরি মাইকিং করা হয়েছে এবং প্রত্যেকটি ইজারাদার ও মালিক সমিতিকে চিঠি দেয়া হয়েছে। লকডাউনের মধ্যে কোনকিছু চলতে পারবে না।

জেলা প্রশাসন গঠিত তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক মো. আজহারুল ইসলাম বলেন, তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে দেখা হবে কি কারণে এই নৌ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। সেখানে চালকের কি ভূমিকা ছিল, চালক নেশাগ্রস্ত ছিল কি না বা ঘুম ভাব ছিল কি না।

এদিকে, একই চিত্র মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটেও। দুর্ঘটনার পর স্পিডবোট চলাচলে নজরদারি বাড়িয়েছে নৌপুলিশ।

শিমুলিয়া ঘাট নৌপুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সিরাজুল কবির বলেন, নৌপুলিশ পালাক্রমে সার্বক্ষণিক নদীতে থাকে এবং ডিউটি করে যাচ্ছে। 

মানুষের ভোগান্তির কথা মাথায় রেখে নিরাপদে নদী পারাপার নিশ্চিতের দাবি দক্ষিণাঞ্চলের যাত্রীদের।
দেখুন ভিডিও :


এএইচ/এসএ/
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি