ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৯ অক্টোবর ২০২০, || কার্তিক ১৫ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

পিটিয়ে অন্তঃসত্বা স্ত্রীর হাত-পা ভেঙে দিলো পাষন্ড স্বামী

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৯:৪৯ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ | আপডেট: ২০:৩৯ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

ঠাকুরগাঁওয়ে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে অন্তঃসত্বা স্ত্রীর দুই হাত ও দুই পা ভেঙে দেয়ার অভিযোগে পাষণ্ড স্বামী নূর ইসলামকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের পল্লীবিদ্যুৎ এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। 

আহত স্ত্রীর নাম পারভীন আক্তার। তিনি জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড়বাড়ী ইউনিয়নের মালঞ্চা গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে এবং সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের পল্লীবিদ্যুৎ এলাকার নূর ইসলামের স্ত্রী। তাকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

হাসপাতালের চিকিৎসক সাকিব ইবনে আব্দুল্লাহ জানান, আহত গৃহবধূর দুই হাত ও দুই পা রডজাতীয় ভারী কোন কিছুর আঘাতে ভেঙেছে বলে বোঝা গেছে। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

আহত পারভীন আক্তার বলেন, আট মাস আগে নূর ইসলামের সঙ্গে আমার বিয়ে হয়। এখন আমি ছয় মাসের অন্তঃসত্বা। বিয়ের পর থেকেই নূর ইসলাম প্রায়ই নেশা করে বাড়ি ফিরে আমাকে মারপিট করত। গত বৃহস্পতিবার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার মালঞ্চা গ্রামে আমার বাবার বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলাম। শুক্রবার সন্ধ্যায় বাবার বাড়ি থেকে ফিরে আসি। বাড়িতে এসে দেখি সে নেশা করে মাতাল অবস্থায় শুয়ে আছে। তার কাছে যাওয়া মাত্রই সে আমাকে চড়-থাপ্পড় মারতে শুরু করে। একপর্যায়ে সে ঘরের দরজা ভেতর থেকে তালা দিয়ে বন্ধ করে দেয়। এরপর ঘরে থাকা একটি লোহার রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে আমার দুই হাত ও দুই পা ভেঙে দেয়। পরে আমার আর্তচিৎকারে পরিবারের লোকজন দরজা ভেঙে আহত অবস্থায় আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে। 

এ ব্যাপারে সদর থানা পুলিশের ওসি তানভীরুল ইসলাম জানান, খবর পাওয়ার পর তাৎক্ষণিকভাবে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত নূর ইসলামকে আটক করা হয়। হাসপাতালে গিয়ে আহত পারভীন আক্তারের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এনএস/


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি