ঢাকা, ২০১৯-০৩-২৫ ১৬:০৫:২৫, সোমবার

Ekushey Television Ltd.

বাণিজ্যমেলায় এখনও চলছে ঠুকঠাক শব্দ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:০১ পিএম, ১২ জানুয়ারি ২০১৯ শনিবার

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে শুরু হয়েছে এবারের ২৪তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা ২০১৯। মেলা শুরুর চারদিন পেরিয়ে গেলেও মেলাপ্রাঙ্গনে এখনও চলছে অবকাঠামো নির্মাণের ঠুকঠাক শব্দ। অংশগ্রহণকারি প্রতিষ্ঠান মালিকরা বলছেন, মেলার সম্পূর্ণ প্রস্তুতিতে এখনও দু-একদিন সময় প্রয়োজন। তবে এরই মধ্যে ক্রেতা-দর্শনার্থীর পদচারনায় মেলা বেশ জমে উঠেছে।

মেলার প্রথম দুদিন লোকসমাগম কম হলেও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় সপরিবারে মানুষজন ঘুরতে এসেছে। অনেকে ঘুরে ঘুরে দেখছেন তার পছন্দের পণ্যটি। মেলায় এখন ক্রেতার চেয়ে দর্শনার্থীরাই বেশি বলে জানালেন বিক্রেতারা।

মেলায় এসইএ এসকেওয়াই বাংলাদেশ স্টলের বিক্রেতা আরিফ বলেন, মেলা এখনও ভালোভাবে জমে উঠেনি। এখন যারা আসছেন মেলা ঘুরে ঘুরে দেখছেন। কেনার সংখ্যা খুবই কম। তিনি বলেন, মেলায় আমাদের প্রস্তুতিও অসম্পূর্ণ রয়ে গেছে। ডেকরেশনের কাজ অনেকটা বাকী আছে। আগামী সপ্তাহের মধ্যে আমাদের কাজ শেষ হবে বলে আশা করছি।

স্টলটির সামনে পুরান ঢাকা থেকে আসা প্রসেনজিৎ বলেন, আমি মেলায় এসেছি দেখতে। পণ্যের দাম সম্পর্কে ধারণা নিতে। আগামী সপ্তাহে পরিবারসহ আসবো। সেদিন গৃহস্থালীর কিছু পণ্য কিনবো।

মেলা ঘুরে দেখা গেছে, সব দিকেই স্টল নির্মাণের কাজ চলছে। মেলায় ঢুকলেই দর্শনার্থীদের কানে আসছে কাঠ, হাতুড়ি, পেরেকের ঠক ঠক আওয়াজ। কাজ শেষ না হওয়া স্টলের মধ্যে বিদেশি প্রতিষ্ঠান যেমন আছে, তেমনি আছে দেশীয় প্রতিষ্ঠানও।

দেশি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সিংহভাগই ছোট প্রতিষ্ঠান। বড় প্রতিষ্ঠান দুই-একটি অসম্পূর্ণ থাকলেও বেশির ভাগই মেলার প্রথম দিন থেকেই বেচাবিক্রির শুরু করেছে। আবার কয়েকটি স্টলে সবেমাত্র পণ্য ওঠানো শুরু করেছে বিক্রয়কর্মীরা। ভিআইপি গেট থেকে সার্ভিস গেট পর্যন্ত বিভিন্ন জায়গায় চলছে স্টল নির্মাণকাজ।

ভিআইপি গেট দিয়ে প্রবেশ করে পশ্চিম দিকে একটু আগালেই চোখে পড়বে থাইল্যান্ড, চীন ও ভারতীয় পণ্যের একটি প্যাভিলিয়ন। সেখানে এখনও স্টল গোছানোর কাজ শেষ হয়নি। এর দক্ষিণ দিকেও সারি সারি বেশ কয়েকটি স্টলের কাজ চলতে দেখা গেছে।
সবচেয়ে বেশি অপ্রস্তুত স্টল দেখা গেছে সার্ভিস গেটের পাশে বা পশ্চিম দিকে। ওই অংশে বেশিরভাগ স্টলেরই কাজ শেষ হয়নি।

এবার বাণিজ্য মেলায় ৬০৫টি বিভিন্ন শ্রেণির প্যাভিলিয়ন ও স্টল রয়েছে। এর মধ্যে ৫৯টি প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন, ১৯টি সাধারণ প্যাভিলিয়ন, ২৬টি বিদেশি প্যাভিলিয়ন, ৬টি সংরক্ষিত প্যাভিলিয়ন, ৩২টি সাধারণ মিনি প্যাভিলিয়ন, ৬৮টি প্রিমিয়ার স্টল, ১৭টি বিদেশি প্রিমিয়ার স্টল, ২৯৫টি সাধারণ স্টল, ৩০টি খাবারের দোকান রয়েছে। মেলা ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে।

আরকে//



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি