ঢাকা, শনিবার   ১৯ অক্টোবর ২০১৯, || কার্তিক ৪ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

বারের পরীক্ষার দাবিতে ডিআইউর বনানী ক্যাম্পাসে তালা  শিক্ষার্থীদের

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২০:৩৭ ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বার কাউন্সিলে রেজিস্ট্রেশন কার্ড না পাওয়ায় ঢাকা ইন্টার ন্যাশলান ইউনিভার্সিটির (ডিআইইউ) বনানী ক্যাম্পাসে তালা দিয়েছে আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা। আজ বুধবার ১০ টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রশাসনিক ভবন, ইনফরমেশন ভবন ও আইন বিভাগসহ মূল গেটে তালা মেরে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ ও অনশন করতে থাকেন। 
এ সময় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পারে ভেতরে চেয়ার-টেবিল ভাংচুর করেন।  পরে বিকালের দিকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ক্যাম্পাসটিতে পুলিশ মোতায়েন করে।  এর আগে মঙ্গলবার বিকাল থেকে সারা রাত শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরে অবস্থান করে বিক্ষোভ ও অনশন করে।  

শিক্ষার্থীরা জানান, মঙ্গলবার রাতে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরে অবস্থান করেছেন।  তাদের আশ্বস্ত করা হয়েছিল বার কাউন্সিল থেকে তাদের রেজিস্ট্রেশন কার্ডের জন্য ডাকা হবে।  বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এও জানান, বারের নেতাদের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের সমস্যা নিয়ে কথা হয়েছে।

তবে অনশন চলাকালে রাতে কর্তৃপক্ষ তাদের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করেনি।  ফলে বুধবার আবারও শিক্ষার্থীরা অনশনে নামেন। 
বিক্ষোভকারী এলএলবি অর্নাসের শিক্ষার্থীরা জানান, আমরা ২০১৮ সালে মোট ১৫৯ জন পাস করলেও আমাদের বার কাউন্সিলে রেজিস্ট্রেশন কার্ডের জন্য ডাকা হয়নি।

বার কাউন্সিল বলছে আপনারা ডিআইউ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের যোগাযোগ করেন।  তালিকার বিষয়টি আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ দিয়ে থাকে।  শিক্ষার্থীরা আইন বিভাগের যোগাযোগ করলে তাদের চলতি সপ্তাহে রেজিস্ট্রেশন কার্ড প্রাপ্তির বিষয়ে আশ্বস্থ করেন।  এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়টি বোর্ড অব ট্রাস্টির চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী বিষয়টি নিয়ে গত সপ্তাহে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সমঝোতায় বসেন।  

শিক্ষার্থীরা বলছেন, প্রতি সেমিস্টারে যে পরিমাণ ছাত্র/ছাত্রী ভর্তি করানো কথা তার চেয়ে বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি করানোয় এ সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।  ফলে বার কাউন্সিল আমাদের রেজিস্ট্রেশন কার্ড দিচ্ছে না। শিক্ষার্থীরা জানান, ওই সময়ে শামীম হায়দার পাটোয়ারী বার কাউন্সিলের রেজিস্ট্রেশন কার্ড প্রাপ্তির বিষয়ে শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করেন।  এ সপ্তাহেই বার কাউিন্সল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে বিষয়টির সমাধান করবেন।  

শিক্ষার্থীদের দাবি, আজ বুধবার পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কোনো সমাধান না করে উল্টো ক্যাম্পাসে পুলিশ পাঠিয়ে শিক্ষার্থীদের হয়রানি করছেন।  

জানতে চাইলে ডিআইউর আইন বিভাগের প্রধান রাইসুল ইসলাম সৌরভ বলেন, বার কাউন্সিলের সঙ্গে তারা বিষয়টি নিষ্পত্তির চেষ্টা করছেন।  অতিরিক্ত শিক্ষার্থী নিয়ে একটা সমস্যা ছিল সেটা সমাধানের চেষ্টা চলছে। 


 টিআর/  
 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি