ঢাকা, শনিবার   ২৩ জানুয়ারি ২০২১, || মাঘ ৯ ১৪২৭

বিশ্বযুদ্ধের থেকেও মারাত্মক পরিস্থিতির আশঙ্কা!

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২২:৫৫, ২২ মার্চ ২০২০

ইতালিতে মৃত্যুর মিছিল দেখে বিমর্ষ দেশটির প্রধানমন্ত্রী

ইতালিতে মৃত্যুর মিছিল দেখে বিমর্ষ দেশটির প্রধানমন্ত্রী

মহামারী করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে ইতালিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৯৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এহেন পরিস্থিতিকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের চেয়েও অনেক বেশি মারাত্মক হবে বলে উল্লেখ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কন্তে। একইসঙ্গে সংকট নিরসনে দেশটির অপ্রয়োজনীয় সব ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান আগামী ৩ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। খবর দ্য গার্ডিয়ান-এর।

মরণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে ইতালিতে। দেশটিতে রোববার (২২ মার্চ) পর্যন্ত ৪ হাজার ৮২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া সংক্রমিত অবস্থায় আছেন ৫৩ হাজার ৫৭৮ জন।

এর আগে গত ২১ মার্চ রাতে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের মাধ্যমে দেশবাসীর উদ্দেশ্যে দেয়া এক ভাষণে প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কন্তে বলেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইতালি কখনও এত বড় দুর্যোগের মুখোমুখি হয়নি। করোনা এখানে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ থেকেও বেশি ক্ষয়ক্ষতি করবে। তাই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আজ থেকে আগামী ৩ এপ্রিল পর্যন্ত দেশের সব অপ্রয়োজনীয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে।

তিনি আরও বলেন, অপরিহার্য নয় এমন দ্রব্যাদি যারা প্রস্তুত করছেন তারাও কাজ বন্ধ রাখবেন। সরকার দেশের নাগরিকদের খাদ্য ও অন্যান্য চিকিৎসা সরঞ্জামাদি সরবরাহ করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে। তাই এসব পণ্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানও আংশিক বন্ধ থাকবে। করোনার আগ্রাসন দমাতে আমরা দেশের উৎপাদন খাত ধীরগতি করে দিচ্ছি, তবে সম্পূর্ণ বন্ধ করে দিচ্ছি না।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসটিতে নতুন করে ২৮ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে গত ডিসেম্বরে শুরু হওয়া ভাইরাসটির প্রকোপে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৪ হাজার ৫শ জন। এর মধ্যে বর্তমানে হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন ২ লাখ ৮৫ হাজার ৬৯১ জন। যাদের বড় একটি অংশের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন প্রায় ৯০ হাজার মানুষ। 

আক্রান্তদের মধ্যে নতুন করে ১ হাজার ৮৬৪ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩ হাজারে দাঁড়িয়েছে।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি