ঢাকা, শনিবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২০, || মাঘ ৫ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ভিপির পদত্যাগ চান ডাকসুতে ছাত্রলীগের নির্বাচিতরা

ঢাবি সংবাদদাতা

প্রকাশিত : ১৮:৩২ ৮ ডিসেম্বর ২০১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুরের টেন্ডারবাজি, তদবির বাণিজ্য ও অনৈতিক অর্থ লেনদেনের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগ তুলে ডাকসু'তে নির্বাচিত ছাত্রলীগের ২৩জন প্রতিনিধি তার পদত্যাগ দাবি করেছেন। আজ রোববার (৮ ডিসেম্বর) ডাকসু ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তারা এ দাবি জানান।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ডাকসু'র জিএস গোলাম রাব্বানী, ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম হোসেনসহ ছাত্রলীগ প্যানেল থেকে নির্বাচিত অন্য সদস্যরা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ডাকসুর সদস্য রাকিবুল হাসান রাকিব বলেন, ‘বিগত নয় মাসে ডাকসু ভিপির উদ্যোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য একটি কাজও সম্পন্ন হয়নি। ভিপি পদ ব্যবহার করে নুর নিজের রাজনৈতিক অভিলাষ পূরণের কাজ পুরো দমে করেছেন। বিভিন্ন ভবনে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রি অফিসে একাধিক টেন্ডারবাজি, তদবির বাণিজ্য, নিয়োগ ও বদলি ইত্যাদি কর্মকান্ডে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন।’

সংবাদ সম্মেলনে নূরকে জাতীয় বেঈমান আখ্যা দিয়ে রাকিবুল হাসান রাকিব বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আবেগকে ব্যবহার করে নূর আজ ডাকসুর ভিপি পদের মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি পদে অবস্থান করছে। নিজেকে জাতীয় বীর হিসেবে হাজির করতে গিয়ে তিনি আজ জাতীয় বেঈমানে পরিণত হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যে প্রত্যাশা নিয়ে তাকে নির্বাচিত করেছে, নূর একদিকে তার কিছুই পূরণ করতে পারেনি, অন্যদিকে তিনি শিক্ষার্থীদের সাথে প্রতারণা করেছে, জাতির সামনে শিক্ষার্থীদের লজ্জিত করেছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কল্যাণার্থে নূরের নামে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পাঁচ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করেছে, যার এক পয়সাও এ নয় মাসে ব্যয় না করে নূর শিক্ষার্থীদের বঞ্চিত করেছে, নিজের দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, ‘সম্প্রতি দুইটি টেলিফোন ফোনালাপ ফাঁস হওয়ার মাধ্যমে নুরের স্বরূপ সকলের সামনে উন্মোচিত হয়েছে। বিভিন্ন সময়ে কাণ্ডজ্ঞান হারিয়ে অজ্ঞান হয়ে যাবার অভিনয় করতে করতে নুর যে টেন্ডারবাজি, তদবির বাণিজ্য, অনৈতিক লেনদেন ইত্যাদিতেও দক্ষতা অর্জন করেছেন তা ছাত্রসমাজের সামনে পরিষ্কার হয়েছে।’ সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রনেতারা বলেন, ‘নুরকে নিজের সকল অপকর্ম, ব্যর্থতা, অক্ষমতা স্বীকার করে ডাকসুর ভিপি পদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে।’

ডাকসুর জিএস গোলাম রাব্বানীর বিরুদ্ধেও আর্থিক কেলেঙ্কারির অভিযোগ উঠেছিল সে বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ‘অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে রাব্বানী ছাত্রলীগ থেকে অপসারিত হয়েছেন। তিনি ডাকসুর পদ ব্যবহার করে কোনো কিছু করেননি।’ এসময় উপস্থিত রাব্বানী নিজের বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত দাবি করেন।

ছাত্রলীগের দাবির বিষয়ে জানতে চাইলে ডাকসু'র ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ যদি কেউ প্রমাণ করতে পারে তাহলে আমি স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করব। কিন্তু ছাত্রলীগের কথায় আমি পদত্যাগ করব না। আমি ছাত্রলীগের নিপীড়নের প্রতিবাদ করি বলে ছাত্রলীগ রাষ্ট্রযন্ত্র ব্যবহার করে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে।’

আরকে//

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি