ঢাকা, ২০১৯-০৬-১৭ ২৩:১৬:১১, সোমবার

Ekushey Television Ltd.

‘মারলে এখানে বিচার হবে অন্যখানে’ মমতার হুংকার (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৩৭ পিএম, ৩১ মে ২০১৯ শুক্রবার | আপডেট: ১২:৫৭ পিএম, ৩১ মে ২০১৯ শুক্রবার

আবারও জয় শ্রীরাম  স্লোগান শুনে মেজাজ হারালেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার ভারতের উত্তর চব্বিশ পরগনার ভাটপাড়ায় যাওয়ার পথে মমতাকে শুনিয়ে বেশ কয়েকজন ‘জয় শ্রী রাম’ ধ্বনি দিলে তিনি মেজাজ হারিয়ে ফেলেন। পরে ভাটপাড়ায় গিয়ে তিনি হুংকার দিয়ে বলেন, ‘মারলে এখানে বিচার হবে অন্য খানে।’  

জানা গেছে, উত্তর চব্বিশ পরগনায় ভাটপাড়ায় যাওয়ার পথে তার গাড়ির পাশে দাঁড়িয়ে বেশ কয়েকজন জয় ‘শ্রী রাম ধ্বনি’ দিতে থাকে। তাই তিনি মেজাজ হারিয়ে গাড়ি থেকে নেমে আসেন। ভিড়ের দিকে এগিয়ে যান।

বলতে থাকেন, ‘আমি এদের চিনি। আমি জানি এরা কারা? আমি এদেরকে চ্যালেঞ্জ করছি। আমি যদি এখানে এদের মারি তাহলে কী হবে?  মিঠুন চক্রবর্তীর সংলাপটা মনে আছে তো। আমি  সেটা  বলতে পারি। সেখানে মৃতদেহের কথা বলা আছে। আমি ওই ধরনের শব্দ ব্যবহার করি না। কিন্তু আমি বলব আমি আপনাদের এখানে মারবো এবং অন্য কোথাও বিচার হবে।`

দীর্ঘদিন ধরেই পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক অশান্তি চলছে। সাত দফা ভোট পর্বেও একাধিকবার অশান্তির ঘটনা ঘটেছে। মৃত্যুও হয়েছে। ভোট পর্ব শেষ হওয়ার পরও রাজনৈতিক সন্ত্রাস চলছে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায়। এরই মধ্যে আরও একবার জয় শ্রী রাম ধ্বনি শুনে মেজাজ হারালেন মমতা।

এদিকে রাজ্যের রাজনৈতিক সংঘর্ষের ঘটনায় তৃণমূলকে ‘অকারণে অভিযুক্ত করায়` প্রধানমন্ত্রীর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে এড়িয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার এই নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনায় সরব হলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

মেদিনীপুরের সদ্য নির্বাচিত সাংসদ মনে করেন,  মমতা তৃণমূলের হাতে খুন হওয়া বিজেপি কর্মীদের পরিবারের সঙ্গে চোখে চোখ রাখতে পারবেন না। সেই সাহস তার নেই তাই মমতা শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যাননি।

দিলিপের কথায়, ‘তৃণমূল কর্মীদের হাতে খুন হওয়া বিজেপি কর্মীদের পরিবারের সদস্যদের চোখে চোখ রাখার সাহস মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেই। সংবাদমাধ্যমে প্রশ্নের উত্তর দিতেও ভয় পান মমতা। সেই কারণেই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হলেন না।

ভিডিও

তথ্যসূত্র: এনডিটিভি ও নিউজ ১৮

এমএইচ/

ফটো গ্যালারি



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি