ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১১ আগস্ট ২০২২

সীতাকুণ্ডে আগুনে পুড়ে ৬ পরিবারের অর্ধকোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৭:৫৫, ৬ আগস্ট ২০২২ | আপডেট: ১৮:১১, ৬ আগস্ট ২০২২

সীতাকুণ্ডের বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নে আগুন লেগে ছয় পরিবারের অর্ধকোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আগুনে ঘরের সমস্ত  মালামাল সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো এখন খোলা আকাশের নিচে রাত্রিযাপন করছেন। এসময় আগুন নিভাতে গিয়ে ৪ জন আহত হয়েছে। 

শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাত ৮টার দিকে উপজেলার বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের মান্দারীটোলা গ্রামের গোমস্তা বাড়িতে এই অগ্নিকাণ্ডে ঘটনা ঘটে। ওই ছয় ঘরে ৬টি পরিবারের বসবাস ছিল।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মিরা এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। তবে নিয়ন্ত্রণে আসার আগেই আগুনে আবদুল হাদির (দুলাল) দশ লক্ষ টাকা, মো. হানিফের ১৫ লক্ষ টাকা, মো. আবু জাফরের ১৬ লক্ষ, হারেচ উদ্দিনের ১০ লক্ষ টাকা, এমরান হোসেনের ২ লক্ষ টাকা, আরব বিল্লার ৫০০০০ টাকার ঘরের মূল্যবান জিনিসপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাত ৮টার দিকে গোমস্তা বাড়ির হারিছ উদ্দিনের ঘরে প্রথমে আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তেই তা পাশ্ববর্তী হানিফ উদ্দিনের ঘর হয়ে বাকী প্রতিবেশীদের ঘরে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। তবে আগুন নিয়ন্ত্রনে আসার আগে ছয় পরিবারের আনুমানিক অর্ধকোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়। হারিছ উদ্দিনরা চার ভাই ও হানিফ উদ্দিনরা দুই ভাই পরিবার নিয়ে এই ঘরগলোতে বসবাস করতেন।

মান্দারীটোলা এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা ডিজিটাল ইঞ্জিনিয়ারিং সার্ভিসের প্রোপাইটর মো. হোসাইন জানান, অগ্নিকাণ্ডে প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তরা এখন খোলা আকাশের নিচে রাত্রী যাপন করছেন।

সীতাকুণ্ড ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন কর্মকর্তা নুরুল আলম দুলাল অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে দ্রুত পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার ফলে আশপাশের আরও কয়েকটি ঘর ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করা সম্ভব হয়েছে। তবে আগুনের সুত্রপাত এখনোও নিশ্চিত করা যায়নি।

কেআই//


 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি