ঢাকা, রবিবার   ২৯ নভেম্বর ২০২০, || অগ্রাহায়ণ ১৫ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

হিটলারের বাহিনীর সঙ্গে সম্পর্ক

সেই নারীদের কাছে ক্ষমা চাইল নরওয়ে সরকার

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:৪৯ ১৮ অক্টোবর ২০১৮

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় নরওয়ের বেশ কয়েকজন নারীর সঙ্গে জার্মান যোদ্ধাদের ভালোবাসার সম্পর্ক ছিল। একারণে ওই নারীরা আক্রোশের শিকার হয়েছিলেন নরওয়ে সরকারের।  

খারপ আচরণের শিকার নরওয়ের ওই নারীদের কাছে দেশের হয়ে ক্ষমা চেয়েছেন নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী আর্না সোলসবার্গ। বুধবার জাতিসংঘের মানবাধিকার ঘোষণাপত্রের ৭০ তম বার্ষিকী উপলক্ষে  তিনি দেশের হয়ে এ ক্ষমা চান।

তিনি বলেন, জার্মান সেনাদের সাথে ভালোবাসার সম্পর্কে জাড়ানো নরওয়ের নারীদের সাথে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ এবং যুদ্ধপরর্তী সময় যে খারাপ আচরণ করা হয়েছে আমরা তার জন্য ক্ষমা প্রার্থী।  

আর্না সোলসবার্গ বলেন, ওই সময় নরওয়ের নারীদের জার্মান সেনাদের প্রতি ছিল টিনেজ ভালোবাসা। এই নিষ্পাপ ভালোবাসার বিষয়টি তাদের তখন কাল হয়ে দাঁড়িয়েছিল। 

তিনি বলেন, আমরা এখন শান্তির পথে এগিয়ে যেতে চাই। এ জন্য বিশ্বব্যাপী যে মানবাধিকারের বিষয়টি সামনে নিয়ে আসা হয়েছে তা আমরা রক্ষা করতে চাই।

জার্মান সেনাদের সাথে ওরওয়ের যে সকল তরুনীদের সম্পর্ক ছিল তারা ‘জার্মান গার্লস’ নামে পরিচিতি পায়। 

জার্মান গার্লস নামে পরিচিত নরওয়ের এ সমস্ত নারীদেরকে সামাজিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়। তাদের অনেককে আটক করা হয়। অনেককে আবার সন্তানসহ জোর করে জার্মানিতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।  

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় নরওয়ে নিরপেক্ষ ছিল। কিন্তু ১৯৪০ সালের এপ্রিলে জার্মানের নাজি বাহিনীর দ্বারা দেশটি আক্রান্ত হয়েছিল। ফলে তারা ওরওয়ের ওই নারীদের প্রতি ক্ষুদ্ধ হয়েছিল।  

ওই সময় জার্মান সেনাদের সাথে আনুমানিক ৫০ হাজারেরও বেশি নরওয়েজিয়ান নারীর ভালোবাসার সম্পর্ক ছিল।

ওই সময় এ্যাডলফ হিটলারের ঘনিষ্ট সহকারী হিসেবে পরিচিত জার্মানদের এসএস নেতা হেনরিক হিমলার জার্মানীদেরকে নরওয়ের ওই নারীদের সঙ্গে সন্তান জন্ম দানে উত্সাহিত করেছিল। এর ফলে ১৯৪১ সালের আগে জার্মান সেনা ও নরওয়ের নারীদের কোলে অনেক সন্তান জন্ম গ্রহণ করেছিল। 

সূত্র: বিবিসি

এমএইচ/


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি