ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০:৪৮:১৮

Ekushey Television Ltd.

হিটলারের আঁকা ছবি নিলামে বিক্রি হলো না

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:৪৮ এএম, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ সোমবার

হিটলারের আঁকা ছবি, কিন্তু এসবকে জাল বলে সন্দেহ করা হচ্ছে

হিটলারের আঁকা ছবি, কিন্তু এসবকে জাল বলে সন্দেহ করা হচ্ছে

এডলফ হিটলারের আঁকা বলে মনে করা হয় এমন পাঁচটি ছবি জার্মানিতে নিলামে তোলা হলেও শেষ পর্যন্ত কোনটিই বিক্রি হয়নি। ‘ওয়েইলডার অকশন হাউস’ এই ছবিগুলো নিলামে তোলে। নিলামে সর্বনিম্ন দাম ঠিক করা হয়েছিল ৪৫ হাজার ইউরো।

হিটলার তার কুখ্যাত সমাবেশগুলো করতেন যে নুরেমবার্গ শহরে, সেখানে এই নিলাম হয়। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর নাৎসী নেতাদের বিচার হয়েছিল এই শহরে।

তবে এই নিলাম নিয়ে বেশ বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। শহরের মেয়র উলরিখ ম্যালি এটিকে কুরুচিপূর্ণ কাজ বলে মন্তব্য করেছিলেন। আর ছবিগুলো আসলেই হিটলারের আঁকা, নাকি নকল, তা নিয়েও বিতর্ক ছিল।

হিটলারের কিছু ব্যক্তিগত ব্যবহৃত সামগ্রীও নিলামের জন্য রাখা হয়েছিল। হিটলার ১৯৩৩ হতে ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত জার্মানি শাসন করেন। তার নেতৃত্বে জার্মানি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু করে।

হিটলারের গণহত্যার শিকার হয়ে মারা যান প্রায় ৬০ লাখ ইহুদী। যুদ্ধে সেই সঙ্গে আরও লাখ লাখ সৈনিক এবং বেসামরিক মানুষ নিহত হন। জার্মানিতে নাৎসীদের কোন প্রতীক প্রকাশ্যে দেখানো নিষেধ। তবে শিক্ষামূলক কাজে এই প্রতীক ব্যবহারে বাধা নেই।

গত সপ্তাহে জার্মান পুলিশ এই অকশন হাউসে তল্লাশি চালায়। তারা সেখান থেকে বেশ কিছু ছবি আটক করে। কৌঁসুলিরা বলছেন, মোট ৬৩টি ছবিতে হিটলারের নামের আদ্যাক্ষর ‘এএইচ’ বা ‘এ হিটলার’ লিখে স্বাক্ষর দেওয়া ছিল। এগুলো জাল বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

জালিয়াতির অভিযোগে কিছু লোকের বিরুদ্ধে এরই মধ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে। হিটলারের আঁকা বলে দাবি করার ছবির বিক্রি নিয়ে বিতর্ক এটাই প্রথম নয়। আগেও তার ছবি বলে বিক্রির চেষ্টা করা শিল্পকর্ম আসলে জাল বলে অভিযোগ ওঠে।

হিটলার তার প্রথম জীবনে ছবি আঁকতেন, কিন্তু তিনি ভিয়েনা একাডেমী অব ফাইন আর্টসে দুবার ভর্তি হবার চেষ্টা করে বিফল হন।

২০১৫ সালে অবশ্য এই ওয়েইল্ডার অকশন হাউস হিটলারের আঁকা বলে দাবি করা কিছু ছবি বিক্রি করে। নিলামে সেগুলোর দাম উঠেছিল প্রায় চার লাখ ইউরো।

তথ্যসূত্র: বিবিসি

এমএইচ/



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি