ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০২৪

মারিউপুলে রাশিয়ার রাসায়নিক হামলার দাবি যাচাই করবে ব্রিটেন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:৩১, ১২ এপ্রিল ২০২২

ব্রিটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রী লিজ ট্রাস জানিয়েছেন, ইউক্রেনের অবরুদ্ধ শহর মারিউপুলে রাশিয়া রাসায়নিক হামলা চালিয়েছে বলে যে দাবি করছে তা যাচাই করার চেষ্টা করছে ব্রিটেন।

পশ্চিমা কর্মকর্তারা আগেই উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যে রাশিয়া প্রতিবেশী ইউক্রেনে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি শুরু করা হামলা দীর্ঘস্থায়ী লড়াইয়ে পরিণত হতে দেখে রাসায়নিক অস্ত্রসহ আরো চরম পদক্ষেপ নিতে পারে।

লিস ট্রাস টুইটারে লিখেছেন, ‘রাশিয়ান বাহিনী মারিউপুলের জনগণের ওপর রাসায়নিক হামলা চালিয়েছে বলে রিপোর্ট পাওয়া গেছে। আমরা এ বিষয়টি বিস্তারিতভাবে যাচাইয়ের জন্য শরিকদের সঙ্গে কাজ করছি।’

তিনি আরও লেখেন, ‘এ ধরণের অস্ত্রের যে কোন ব্যবহার সংঘাতের পরিস্থিতি আরো বাড়িয়ে দেবে এবং আমরা পুতিন ও তার সরকারকে জবাবদিহিতার মুখোমুখি করবো।’

ইউক্রেনের আইন প্রণেতা ইভানা ক্লিম্পুশ এক টুইটে বলেছেন, ‘রাশিয়া মারিউপুলে একটি ‘অজানা পদার্থ’ ব্যবহার করেছে এবং লোকেরা এতে শ্বাস কষ্ঠে ভুগেছে। সম্ভবত এটি রাসায়নিক অস্ত্র।’

মেসেজিং অ্যাপ টেলিগ্রামে মারিউপুলের মেয়রের এক সহযোগী লিখেছেন, ‘রাসায়নিক হামলার তথ্য এখনো নিশ্চিত করা যায়নি।’

পেট্রো অ্যান্ড্রুচেঙ্ক লিখেছেন, ‘আমরা সামরিক বাহিনী থেকে আনুষ্ঠানিক তথ্যের জন্য অপেক্ষা করছি।’

এর আগে সোমবার ইউক্রেনের আজভ ব্যাটালিয়ন দাবি করেছে যে, একটি রাশিয়ান ড্রোন মারিউপুলে সেনা ও বেসামরিক অবস্থানে ‘বিষাক্ত পদার্থ’ ফেলেছে। তারা আরো দাবি করে যে, লোকেরা শ্বাসযন্ত্রের কষ্ট এবং বায়ুবিক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে।

ব্যাটালিয়ন নেতা আন্দ্রেই বিলেটস্কি পরে তার নিজের টেলিগ্রাম চ্যানেলে একটি ভিডিও বার্তায় বলেন, “যুদ্ধে তিনজনের শরীরে রাসায়নিক বিষক্রিয়ার স্পস্ট নিদর্শন পাওয়া গেছে। তবে কোন মানবিক বিপর্যয় দেখা দেয়নি।”
এসএ/
 


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি