ঢাকা, বুধবার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

পেশোয়ারে মসজিদে বিস্ফোরণ, নিহত বেড়ে ৮৮

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৩১, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩

পাকিস্তানের পেশোয়ারে পুলিশ লাইন মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলার ঘটনায় আরও ২৯ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৮ জনে।

মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) দুপুরের দিকে এ তথ্য নিশ্চিত করে প্রদেশটির লেডি রিডিং হসপিটাল (এলআরএইচ) কর্তৃপক্ষ।

পেশোয়ারের লেডি রিডিং হসপিটালের মুখপাত্র মোহাম্মদ ওসিম সবশেষ এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেছেন, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অনেকের অবস্থা আরও গুরুতর।

এর আগে সোমবার (৩০ জানুয়ারি) ৫৯ জনের মৃত্যু ও ১৫৭ জন আহতের খবর দেয় তারা। 

এদিকে ওই হামলার দায় স্বীকার করে বিবৃতি দিয়েছে তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান-টিটিপি।

পেশোয়ারের পুলিশ কমিশনার রিয়াজ মেহসুদ বলেন, আহতদের চিকিৎসার জন্য পেশোয়ার শহরের হাসপাতালগুলোতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

বিস্ফোরণে মসজিদটির একটি অংশ ভেঙে পড়েছে এবং সামনের কাতারে যারা ছিলেন, তাদের অনেকে এর নিচে পড়ে যান।

বিস্ফোরণের পর মসজিদের ভেতরের ২০০-২৫০ মুসল্লি ধারণক্ষমতাসম্পন্ন মূল অংশটির সামনের দিকের ছাদ ভেঙে পড়ে বলে জানান পেশোয়ারের পুলিশ কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইজাজ খান।

ওই ছাদের নিচে এখন পর্যন্ত কিছু পুলিশ সদস্যের মরদেহ আটকা পড়ে আছে বলেও জানান তিনি।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানসহ অনেকে এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ তার দলের নেতাকর্মীদের আহতদের জন্য রক্ত দেওয়ার নির্দেশ দেন।

যে এলাকায় বিস্ফোরণটি ঘটেছে, সেখানে পেশোয়ার পুলিশ, সিটিডি, এফআরপি, এলিট ফোর্স এবং টেলিযোগাযোগ বিভাগের সদর দফতর রয়েছে।

টিটিপি ইতোমধ্যে হামলার দায় স্বীকার করেছে। টিটির কমান্ডার সারবাকাফ মোহমান্দ এক টুইটবার্তায় জানিয়েছেন, গত বছরের আগস্টে নিরাপত্তা বাহিনীর এক অভিযানে তার ভাই উমর খালিদ মোহমান্দ নিহত হয়েছিলেন।

ভাইয়ের হত্যার প্রতিশোধ নিতেই পেশোয়ারের মসজিদে সে হামলা চালানো হয়েছে বলে দাবি করেছেন সারবাকাফ। সূত্র- ডন।

এনএস//


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি