ঢাকা, শনিবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, || অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৮

নিজেদের জয়ী দাবি করলেন ট্রাম্প-বাইডেন 

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:৪৪, ৪ নভেম্বর ২০২০ | আপডেট: ১৫:৫১, ৪ নভেম্বর ২০২০

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল ঘোষণার সাথে তীব্র হচ্ছে উত্তেজনা। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বর্তমান প্রেসিডেন্টের চেয়ে কিছুটা এগিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জো বাইডেন। কিন্তু চূড়ান্ত ফলের আগেই নিজেদেরকে জয়ী ঘোষণা করলেন দুই প্রার্থী। 

এর মধ্যে নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনে আবারও নিজেকে বিজয়ী ঘোষণা করেছেন রিপাবলিক্যান প্রার্থী ডেনাল্ড ট্রাম্প। 

তিনি বলেন, ‘আমি জয়ী হয়েছি। ভোট গণনার বিতর্ক নিরসনে আমরা সর্বোচ্চ আদালতে যাবো।’

এক টুইটবার্তায় ট্রাম্প বলেন, ‘আমরা বিশাল জয়ের আশা করছি। কিন্তু নির্বাচনে কারচুপির চেষ্টা চলছে। আমরা কখনোই এটা করতে দেব না।’এর আগে নির্বাচনের প্রথম দিন ৩০৬ ইলেক্টোরাল ভোটে জিতবেন বলে জানান তিনি। 

অন্যদিকে, থেমে নেই ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেনও। ভোটের মাঠে সমর্থকদের শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা জানতাম এটা দীর্ঘায়িত হতে যাচ্ছে। আমাদের শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এবং আমরা জয়ী হবো।’ 

বাইডেন বলেন, ‘আমাদের বর্তমান অবস্থানে আমরা খুশি। আমি বলছি, আমরা নির্বাচনে জয়ের পথে আছি। প্রত্যেকটি ভোট ও ব্যালট গণনা শেষ না হওয়া পর্যন্ত আপনারা ধৈর্য ধরুন।’

এদিকে আমেরিকার মসনদে বসার লড়াই এখন তুঙ্গে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন ২৩৮ ইলেক্টোরাল ভোট পেয়ে এগিয়ে রয়েছেন। ট্রাম্প ২১৩টি জয় পেয়ে কিছুটা পিছিয়ে। 

তবে এখনও যেসব ফল ঘোষণা বাকি রয়েছে, সেগুলোর মধ্যে একমাত্র নেভাডা ব্যতীত প্রত্যেকটিতে এগিয়ে ট্রাম্প। এর মধ্যে জর্জিয়া ও উত্তর ক্যারোলিনায় ট্রাম্পের থেকে সামান্য দূরে বাইডেন। মূলতএ দুই রাজ্যই নির্ধারণ করবে আগামী চার বছর হোয়াইট হাউস কার নিয়ন্ত্রণে থাকবে। 

ফক্স নিউজের তথ্য বলছে, জর্জিয়ায় ১৬, উত্তর ক্যারোলিনায় ১৫, পেনসিলভেনিয়ায় ২০ মিশিগানে ১৬, উইসকনসিনে ১০ ইলেক্টোরাল ভোট আছে। যেগুলোতে ট্রাম্পের জয়ের সম্ভাবনাই বেশি। ফলে, শেষ মুহূর্তে এসে গতবারের ন্যায় আবারও তরী ডুবতে পারে ডেমোক্র্যাটদের। 

এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত ফলাফলে রাজধানী নিউ ইয়র্কসহ ওয়াশিংটন স্টেট, ওরিজন, ক্যালিফোর্নিয়া, ডেলাওয়ার, কলোরাডো, ডিস্ট্রিক্ট অব কলম্বিয়ায় জয় পেয়েছেন জো বাইডেন। 

অন্যদিকে ইন্ডিয়ানা, কেন্টাকি, ওকলাহোমা, টেনিসি ও ওয়েস্ট ভার্জিয়ানা, মিসৌরি, কেনসাস, নেব্রাস্কা, লুইজিয়ানা, উত্তর ও দক্ষিণ ডেকোটায় ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট। ২০১৬ সালের নির্বাচনেও এসব রাজ্যে জয়ী হয়েছিলেন ট্রাম্প।

এছাড়া ট্রাম্প জয় পেয়েছেন আরকানসাসস ও ফ্লোরিডায়। আর ট্রাম্পকে ছাড়িয়ে ম্যাসাচুসেটস ও নিউ জার্সিতে জয় পেয়েছেন বাইডেন। এছাড়া তিনি রোডে আইল্যান্ডে, কানেক্টিকাট, ইলিনয়েস এবং মেরিল্যান্ডে এগিয়ে আছেন। এসব রাজ্য অবশ্য বরাবরই ডেমোক্র্যাটদের দখলে থাকে। গত নির্বাচনেও হিলারি ক্লিনটন এগুলোতে জয় পেয়েছিলেন। 

এদিকে সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনের তথ্যমতে, ইলেক্টোরাল ভোটের পাশাপাশি জনগণের ভোটেও এগিয়ে আছেন বাইডেন । যেখানে এখন পর্যন্ত বাইডেন শিবিরে ভোট পড়েছে ৬ কোটি ৫৪ লাখ ৪৩ হাজার ৭৬৬টি। অন্যদিকে, ট্রাম্প পেয়েছেন ৬ কোটি ৩৮ লাখ ১৫ হাজারের  বেশি ভোট। 

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ম্যাজিক সংখ্যা ২৭০। জিতলে হলে যেকোন প্রার্থীকে ২৭০টি ইলেক্টোরাল ভোট পেতে হবে। 

এআই//এমবি


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি