ঢাকা, মঙ্গলবার   ৩১ জানুয়ারি ২০২৩

দোনেস্কের বাসিন্দাদের নিরাপদে সরে যেতে বললেন জেলেনস্কি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:০৩, ৩১ জুলাই ২০২২

প্লাকার্ড হাতে আজভ ব্যাটালিয়নের যোদ্ধাদের স্বজনরা

প্লাকার্ড হাতে আজভ ব্যাটালিয়নের যোদ্ধাদের স্বজনরা

ইউক্রেনের নিয়ন্ত্রণাধীন পূর্ব দোনেস্ক অঞ্চলে এখনও যেসব বাসিন্দা রয়ে গেছেন, তাদেরকে অবিলম্বে নিরাপদ আশ্রয়ে সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। শনিবার (৩০ জুলাই) দিবাগত রাতে দেয়া এক ভাষণে রুশ সীমান্তবর্তী অঞ্চলটিতে তীব্র লড়াইয়ের আভাস দিয়ে সতর্ক করেন তিনি।

জেলেনস্কি বলেন, ‘এখন যত বেশি মানুষ দোনেস্ক অঞ্চল ছেড়ে যেতে পারবেন, তত কম লোককে হত্যা করার সময় পাবে রাশিয়ান সেনাবাহিনী’। 

লুহানস্ক ও দোনেস্ক এই দুই অঞ্চল মিলে ডনবাস। লুহানস্কের বেশিরভাগ জায়গায় তীব্র লড়াইয়ের মধ্যে দিয়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে রুশ বাহিনী। এখন দোনেস্ক নিয়ন্ত্রণে নিতে ভারী হামলা শুরু করেছে। এতে অঞ্চলটিতে থাকা ইউক্রেনীয় বাসিন্দাদের নিয়ে চিন্তিত কিয়েভ। রুশ বাহিনীর ধীরগতিতে আগানোর মধ্যেও এই অঞ্চলে ভারী সংঘর্ষ শুরু হয়ে গেছে, ইতিমধ্যে কিছু এলাকার ভেতরে ঢুকে গেছে রুশ সেনারা।

এমন বাস্তবতায় প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি বলেন, আমরা যতটা সম্ভব সেখানকার বাসিন্দাদের জীবন বাঁচাতে এবং রাশিয়ার সন্ত্রাসী কার্যকলাপ মোকাবিলায় সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাব। 

এদিকে, দোনেস্কের অঞ্চলের ওলেনিভাকার কারাগারে রুশ সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীদের হাতে ইউক্রেনের ৫০ যুদ্ধবন্দি হত্যার তদন্তে জাতিসংঘ ও রেডক্রস কর্মকর্তাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন জেলেনস্কি। এ ঘটনায় একে অপরকে দোষারাপ করছে ইউক্রেন ও রাশিয়া। 

রুশ প্রতিরক্ষা কর্মকর্তারা বলেছেন, এই ঘটনার 'উদ্দেশ্যমূলক তদন্তকে' স্বাগত জানাবে মস্কো। ওলেনিভকা বন্দি শিবিরটি রুশ সমর্থিত স্ব-ঘোষিত দোনেস্ক পিপলস রিপাবলিক (ডিএনআর) নিয়ন্ত্রণ করে আসছে। 

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অভিযোগ, গত (২৯ জুলাই) শুক্রবার মার্কিন নির্মিত হিমার্স রকেট ব্যবস্থা দিয়ে রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের একটি কারাগারে হামলা চালিয়েছে ইউক্রেন। এখানে মূলত ইউক্রেনীয় যুদ্ধবন্দিদের রাখা হয়েছিল। এদের মধ্যে আজভ ব্যাটালিয়নের যোদ্ধারাও ছিলেন। 

মস্কো আরও জানিয়েছে, ইউক্রেনের হামলায় ৫০ জন যুদ্ধবন্দি নিহত হয়েছেন। তবে এমন অভিযোগ পুরোপুরি প্রত্যাখান করেছে কিয়েভ।

এনএস//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২৩ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি