ঢাকা, শুক্রবার   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, || ফাল্গুন ১৩ ১৪২৭

দ্বিতীয় দিন শেষে ব্যাকফুটে ভারত

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২০:০০, ১৬ জানুয়ারি ২০২১

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বৃষ্টি বিঘ্নিত ব্রিসবেন টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে ৩০৭ রানে পিছিয়ে রয়েছে সফরকারী ভারত। যদিও তাদের হাতে রয়েছে ৮টি উইকেট! প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার ৩৬৯ রানে রানের জবাবে ২ উইকেটে ৬২ রান করেছে টিম ইন্ডিয়া। যদিও শেষ সেশনটি ভেস্তে গেছে বৃষ্টিতে।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সিরিজের চতুর্থ ও শেষ টেস্টের প্রথম দিন ডান-হাতি ব্যাটসম্যান মার্নাস লাবুশানের ১০৮ রানের সুবাদে ৫ উইকেটে ২৭৪ রান করেছিলো অস্ট্রেলিয়া। দলীয় ২১৩ রানে পঞ্চম উইকেট পতনের পর জুটি বেঁধেছিলেন ক্যামেরন গ্রিন ও অধিনায়ক টিম পেইন। ষষ্ঠ উইকেটে অবিচ্ছিন্ন ৬১ রানের জুটি গড়ে দিন শেষ করেছিলেনন গ্রিন ও পেইন। গ্রিন ২৮ ও পাইন ৩৮ রানে অপরাজিত ছিলেন।

আজ ওই জুটি দলের স্কোরকে ৩শ স্পর্শ করান। টেস্ট ক্যারিয়ারের নবম হাফ-সেঞ্চুরিও তুলে নেন পেইন। তবে অর্ধশতকে পা দিয়েই থামতে হয় তাকে। ভারতীয় পেসার শারদুল ঠাকুরের বলে স্লিপে রোহিত শর্মাকে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে ৬টি চারে ১০৪ বলে ৫০ রান করেন অজি অধিনায়ক। তার আগে গ্রিনের সঙ্গে ২০৪ বলে ৯৮ রান যোগ করেন তিনি।

দলীয় ৩১১ রানে পেইন ফেরার পরের ওভারেই বিদায় নেন গ্রিনও। দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে গ্রিনকে বোল্ড করেন ব্লুজ স্পিনার ওয়াশিংটন সুন্দর। ১০৭ বলে ৬টি চারে ৪৭ রান করেন গ্রিন।

দুই স্বীকৃত ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর বেশিক্ষণ ক্রিজে টিকতে পারেননি টেল-এন্ডার প্যাট কামিন্স। ২ রান করা কামিন্সকে লেগ বিফোর আউট করেন শারদুল। ফলে ৩১৫ রানেই অষ্টম উইকেটের পতন ঘটে অজিদের। এতেই বাকী ২ উইকেটও দ্রুত তুলে নেয়ার স্বপ্ন দেখছিলো ভারত। কিন্তু সেটি হতে দেননি মিচেল স্টার্ক-নাথান লিঁও ও জশ হ্যাজেলউড।

নবম উইকেটে মারমুখী ব্যাট করে ৪০ বলে ৩৯ রান যোগ করেন লিঁও ও স্টার্ক। দলীয় ৩৫৪ রানে লিঁওকে (২৪) বোল্ড করে এই জুটি ভাঙ্গেন ওয়াশিংটন। এরপর শেষ ব্যাটসম্যান হ্যাজেলউডকে নিয়ে আরও একটি জুটি গড়ার চেষ্টা করেন স্টার্ক। ধীরলয়ে এগোতে থাকেন তারা। শেষ পর্যন্ত হ্যাজেলউডকে (১১) বোল্ড করে ৩৬৯ রানে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসের সমাপ্তি টানেন অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা বাঁ-হাতি পেসার টি নটরাজন। তবে ১টি ছক্কায় ৩৫ বলে ২০ রানে অপরাজিত থাকেন স্টার্ক। ভারতের নটারাজন-শারদুল ও ওয়াশিংটন ৩টি করে উইকেট নেন।

মধ্যাহ্ন-বিরতির পর নিজেদের ইনিংস শুরু করে ভারত। তবে শুভসূচনা করতে পারেনি সফরাকারীরা। সপ্তম ওভারেই মাত্র ৭ রান করা ওপেনার শুভমান গিলকে হারায় ভারত। প্যাট কামিন্সের শিকার হয়ে দলীয় ১১ রানে প্রথম উইকেট পতন হলেও ভারতের রানের চাকা ঘুরেছে আরেক ওপেনার রোহিত শর্মার ব্যাটে। ওয়ানডে মেজাজে খেলে ভারতের স্কোরকে ৫০ পার করেন রোহিত। 

নিজেও এগিয়ে যাচ্ছিলেন হাফ-সেঞ্চুরির দিকেই। কিন্তু ২০তম ওভারের পঞ্চম বলে নিজের উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসেন রোহিত। অজি স্পিনার লিঁওকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে স্টার্কের তালুবন্দি হন এই মারকুটে। তার আগে ৬টি দৃষ্টিনন্দন চারে ৭৪ বলে ৪৪ রান যোগ হয় নামের পাশে। দ্বিতীয় উইকেটে চেতেশ্বর পূজারার সাথে ৮২ বলে ৪৯ রান দলকে এনে দেন রোহিত। এরমধ্যে ৫১ বলে ৪০ রানই ছিলো হিটম্যানের।

দলীয় ৬০ রানে দ্বিতীয় উইকেট পতনের পর ইনিংস মেরামতের দায়িত্ব পালন করেন পূজারা ও অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানে। উইকেট বাঁচানোতেই মনযোগী হওয়ায় রানের চাকাই ঘুরছিলো না ভারতের। এর মধ্যে চা-বিরতির সময়ও হয়ে যায়। জুটিতে ৩৭ বলে অবিচ্ছিন্ন ২ রান তুলে বিরতিতে যান পূজারা ও রাহানে।

তবে বিরতির পর আর মাঠে নামতে হয়নি তাদের। বৃষ্টিতে পুরো সেশনটিই ভেসে যায়। যে কারণে রোববার ৩০ মিনিট আগে শুরু হবে তৃতীয় দিনের খেলা। পূজারা ৪৯ বলে ৮ ও রাহানে ১৯ বলে ২ রান নিয়ে অপরাজিত ছিলেন। অস্ট্রেলিয়ার কামিন্স ও লিঁও ১টি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
অস্ট্রেলিয়া: ৩৬৯/১০, ১১৫.২ ওভার (লাবুশানে ১০৮, পেইন ৫০, নটারাজন ৩/৭৮)।
ভারত: ৬২/২, ২৬ ওভার (রোহিত ৪৪, পূজারা ৮*, লিঁও ১/১০)।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি