ঢাকা, শুক্রবার   ০৫ মার্চ ২০২১, || ফাল্গুন ২০ ১৪২৭

করোনা মোকাবিলায় এগিয়ে এলেন ক্রিকেটাররা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:২৪, ২৫ মার্চ ২০২০ | আপডেট: ১৫:২৫, ২৫ মার্চ ২০২০

পৃথিবীব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। যার থাবায় প্রতিনিয়ত বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। বিশ্বব্যাপী এখন পর্যন্ত ১৯ হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। আক্রান্ত ৪ লাখ ২২ হাজারেরও বেশি মানুষ। 

প্রকোপ থেকে বাঁচতে বিশ্বব্যাপী ঘরবন্দি হয়েছেন কোটি কোটি মানুষ। যাদের সাহায্যে এগিয়ে এসেছে ক্রীড়াঙ্গনের তারকারা। লিওনেল মেসি থেকে শুরু করে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালন্দো, রবি বোপারা ও শেন ওয়ানরা লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। 

করোনার প্রকোপ থেকে রেহাই পায়নি বাংলাদেশও। এখন পর্যন্ত এখানে ৩৯ জনের শরীরের ভাইরাসটির দেখা মিলেছে, প্রাণ গেছে ৫ জনের। যেকোনো সময় মহামারি রূপ নিতে পারে করোনা। যাতে কোটি কোটি মানুষ ঘরবন্দি হয়ে পড়বে। আর এতেই অসংখ্য খেটে খাওয়া মানুষকে কষ্টে দিনানিপাত করতে হবে। 

এমন পরিস্থিতিতে প্রাণঘাতি ভাইরাসটি মোকাবিলায় এগিয়ে আসলেন দেশের ক্রিকেটাররা। চলতি মাসের বেতনের অর্ধেক অর্থ প্রদান করলেন মুশফিকুর-তামিমরা। 

২৭ জন ক্রিকেটার তাদের বেতনে ৫০ শতাংশ দান করেন। যার পরিমাণ হয়েছে ৩০ লাখ টাকারও বেশি। তবে করবাবদ বাদ পড়বে ৪ লাখ টাকার বেশি। ফলে, ২৬ লাখ টাকারও বেশি ব্যয় করা হবে করোনা ইস্যুতে। 

আজ মঙ্গলবার দুপুরের দিকে নিজের ভ্যারিফায়েড ফেসবুক পেজে এ কথা জানান জাতীয় দলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। 

যেখানে তিনি বলেন, ‘আপনারা সবাই জানেন করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে চারদিকে ক্রমেই ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯ রোগ। এই রোগ প্রতিরোধে কঠিন সময়ের মধ্যদিয়ে যাচ্ছে পুরো বিশ্ব। বাংলাদেশও ব্যতিক্রম নয়। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে যার যার জায়গা থেকে।’

মুশফিক বলেন, ‘সেটির অংশ হিসেবে আমরা ক্রিকেটাররা একটা উদ্যোগ নিতে যাচ্ছি, যেটি হয়তো অনুপ্রাণিত করতে পারে আপনাদেরও। আমরা এই মাসের বেতনের ৫০ শতাংশ দিয়ে একটা তহবিল গঠন করেছি। এই তহবিল ব্যয় হবে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে আক্রান্ত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত ও সাধারণ মানুষদের জন্য, যাদের গৃহবন্দী থাকা অবস্থায় জীবন চালিয়ে নিতে অনেক কষ্ট হয়।’

মি. ডিপেন্টাবল জানান, ‘তহবিলে জমা পড়েছে প্রায় ৩০ লাখ টাকার মতো। কর কেটে থাকবে ২৬ লাখ টাকা। করোনার বিরুদ্ধে জিততে হলে আমাদের এই উদ্যোগ হয়তো যথেষ্ট নয়। কিন্তু যাদের সামর্থ্য আছে সবাই যদি একসঙ্গে এগিয়ে আসেন কিংবা ১০ জনও যদি এগিয়ে আসেন, এই লড়াইয়ে আমরা অনেক এগিয়ে যাব। হ্যাঁ, এরই মধ্যে করোনা মোকাবিলায় অনেকে এগিয়ে এসেছেন। তাদের অবশ্যই সাধুবাদ জানাই।’

‘কিন্তু বৃহৎ পরিসরে যদি আরও অনেকে এগিয়ে আসে, তাহলে আমরা এই লড়াইয়ে জিততে পারব ইনশাআল্লাহ। সেই সহায়তা হতে পারে ১০০, ৫০০০ কিংবা ১ লাখ টাকা দিয়ে। টাকা দিয়ে না হোক হতে পারে দুস্থ মানুষকে খাবার কিনে দিয়ে। আসুন পুরো দেশকে আমরা একটা পরিবার ভেবে চিন্তা করি এবং এই বিপদে সবাই সবাইকে সহায়তা করি। আল্লাহ আমাদের নিশ্চয়ই রক্ষা করবেন।’

এআই/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি