ঢাকা, মঙ্গলবার   ২২ অক্টোবর ২০১৯, || কার্তিক ৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

অনলাইনে মজুরি পাবেন পোশাক শ্রমিকরা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৮:২৮ ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

পোশাক শ্রমিকদেরকে  ডিজিটাল পদ্ধতির আওতায় নিয়ে আসা হচ্ছে। তাদের জন্য চালু করা হয়েছে ‘ডিজিটাল ওয়ালেট’ বা অনলাইন পেমেন্ট পদ্ধতি। এই প্রযুক্তির মাধ্যমে কর্মীদের বিভিন্ন ধরনের সুবিধা দেয়া হবে। সম্প্রতি আরএমজি ডিজিটাল ওয়ালেটের (ই-ওয়ালেট) নামে বিজিএমইএ প্রযুক্তি বিভাগের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। এই চুক্তির মাধ্যমে পোশাক কর্মীরা ডিজিটাল পদ্ধতিতে মজুরিও পাবেন। প্রাথমিকভাবে এই পদ্ধতি স্বল্প পরিসরে চালু করা (পাইলট প্রকল্প) হয়েছে। আগামী তিন মাসের মধ্যে সারাদেশে ই-ওয়ালেটকে বড় পরিসরে নিয়ে যাওয়া হবে।

জানা গেছে, গার্মেন্টস শিল্প কর্মীরা দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ব্যাপক অবদান রেখে চলেছেন। তাদেরও তথ্যপ্রযুক্তির মধ্যে নিয়ে আসার জন্য এ উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। তারাও ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ের সঙ্গে যুক্ত হবেন। পোশাক মালিকদের পক্ষ থেকে এমন একটি উদ্যোগ পোশাক শিল্প কর্মীদের বড় ধরনের সুবিধা তৈরি করবে। তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগানোর ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি অবদান রাখছে তৈরি পোশাক শিল্প খাত, যা বর্তমান সরকারের অন্যতম লক্ষ্য। তাই পোশাক শিল্পকে সব ধরনের সহযোগিতা দেয়ার ক্ষেত্রে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ সব সময় সচেষ্ট রয়েছে। স্বল্প পরিসরে পোশাক শিল্পে ই-ওয়ালেট চালু হয়েছে। তবে আগামী তিন মাসের মধ্যে ই-ওয়ালেটকে বড় পরিসরে নিয়ে যাওয়া হবে। দেশে প্রায় ৫০ লাখ গার্মেন্টস কর্মী কাজ করছেন। প্রতিজন কর্মীই এই সুবিধার আওতায় আসবে।

বিগত দিনগুলোতে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অভিযাত্রায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির অভূতপূর্ব সম্প্রসারণ ঘটেছে। প্রযুক্তিভিত্তিক তথ্য ও সেবা পৌঁছে দেয়া হয়েছে মানুষের দোরগোড়ায়। এখন দেশের মানুষ ঘরে বসেই প্রযুক্তির সুবিধা নিতে পারছেন। এমনকি তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে মানুষ ঘরে বসেই বৈদেশিক মুদ্রা আয় করছেন। তথ্যপ্রযুক্তির যত রকমের সুবিধা রয়েছে তার সব কিছু দেশের মানুষের হাতে পৌছে দেয়া হবে। গার্মেন্টস সেক্টরে প্রাথমিকভাবে তথ্যপ্রযুক্তি ছোয়া লেগেছে। ধীরে ধীরে সব সেক্টরেই তথ্যপ্রযুক্তির আওতায় চলে আসবে।

আরকে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি