ঢাকা, সোমবার   ২১ অক্টোবর ২০১৯, || কার্তিক ৬ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

অভিমানেই কী পাকিস্তানের বিরুদ্ধে খেলবেন না মাশরাফি!

প্রকাশিত : ১০:৫২ ৫ জুলাই ২০১৯

মাশরাফিকে নিয়ে আলোচনা আর সমালোচনার শেষ নেই। তার নেতৃত্ব ইতোমধ্যে প্রশংসা কুড়িয়েছে অনেক। কিন্তু এই বিশ্বকাপে ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স নিয়ে পড়তে হয়েছে সমালোচনার মুখে। তাই ইতোমধ্যে তার অবসর নেওয়া নিয়েও কথা উঠেছে।

আর এরই মধ্যে বিশ্বেকাপের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তিনি না খেলার বিষয়েও দলকে জানিয়েছেন। তাই আজ লর্ডসে মাশরাফি বিন মর্তুজার পরিবর্তে সাকিব আল হাসানকে টস করতে নামতে দেখলে অনেকই হয়তো চমকে উঠতে হবে।

অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ইনজুরিতে পড়েছেন। গতকাল অনুশীলনই করেননি তিনি। আজকের ম্যাচ না খেলার ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন দলকে। সে ক্ষেত্রে সহ-অধিনায়ক সাকিব আল হাসান আজ টস করবেন। তবে যত দূর জানা গেছে, অধিনায়কত্বের প্রস্তাব পেয়েই রাজি হননি সাকিব। হয়তো তিনিও মনে করছেন চোটের চেয়েও গুরুতর কোনো কারণে পাকিস্তান ম্যাচ থেকে সরে দাঁড়াতে চাচ্ছেন মাশরাফি।

সেই গুরুতর কারণটি হয়তো সবারই জানা। বিশ্বকাপে মাশরাফির ‘ব্যর্থতা’ নিয়ে কথাবার্তা হচ্ছে। এর সূত্র ধরে তাঁর ওপর অবসর নেওয়ার চাপও তৈরি হচ্ছে। অধিনায়কত্ব কিংবা চোটজর্জর শরীর নিয়ে তাঁর ম্যাচ খেলার বিষয়টিও সমালোচকদের বিবেচনায় নেই। এ নিয়েই কি অভিমানাহত মাশরাফি? প্রশ্নটি উঠছে কারণ, হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট নিয়ে তো বিশ্বকাপের শুরু থেকেই খেলছেন তিনি। তাহলে শেষ ম্যাচে এমন কী হলো যে বিশ্রাম নিতে হবে?

সাকিবও তাই চট করেই আজকের ম্যাচে অধিনায়কত্ব করতে রাজি হননি। তবে পরিস্থিতির সবটাই নির্ভর করছে মাশরাফির ওপর। তিনি শেষমেশ না খেললে টস তো করতেই হবে সহ-অধিনায়ককে। আপাতত টস পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতেই হচ্ছে মাশরাফির শেষ বিশ্বকাপ ম্যাচের চিত্রনাট্য ওলটপালট হয় কি না, সেটি জানতে।

উল্লেখ্য, বিশ্বকাপের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগে বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা জানিয়েছিলেন- এটাই হতে যাচ্ছে তার শেষ বিশ্বকাপ।

বিশ্বকাপের এবারের আসরে ৭ ম্যাচ খেলে একটি মাত্র উইকেট পেয়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। আর ১০ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে সব মিলিয়ে করেছেন ১৯ রান। ব্যাট-বল সবেতেই ব্যর্থ টাইগার অধিনায়ক। 

সেই সঙ্গে প্রত্যাশা মাফিক বলও করতে পারেননি তিনি। তাই গুঞ্জন, বিশ্বকাপ শেষে দেশে ফিরেই অবসরের ঘোষণা দেবেন মাশরাফি। বয়স, ফিটনেস আর সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স ছাড়াও বর্তমানে জাতীয় সংসদের নির্বাচিত সংসদ সদস্য তিনি। মূলত রাজনৈতিক জীবনে মনোনিবেশ করার জন্যই ক্যারিয়ারের ইতি টানবেন বলে শোনা যাচ্ছিল। 

মাশরাফির সময়কার ক্রিকেটারদের কেউই এখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নেই। অথচ তিন চোট নিয়েই খেলে যাচ্ছেন বিশ্বকাপে। হাঁটুতে আছে সাতটি অস্ত্রোপচার। এভাবেই ২০০১ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের পর ১৮ বছর পার করে দিয়েছেন।

২০১৪ সালে দ্বিতীয় দফায় বাংলাদেশের নেতৃত্ব পেয়ে দলকে একের পর এক সাফল্য এনে দিয়েছেন মাশরাফি। তার নেতৃত্বেই বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনাল, এশিয়া কাপে ফাইনাল, চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে সেমিফাইনাল, প্রথমবারের মতো ত্রিদেশীয় সিরিজ জয়ের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সিরিজের সাফল্য তো আছেই।

এনএম

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি